।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

সাত সপ্তাহ পর দেশে একদিনে শনাক্ত কোভিড রোগীর সংখ্যা আবার ছয়শ ছাড়িয়েছে, নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার রয়েছে দশ শতাংশের উপরে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, সোমবার সকাল পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় ৫ হাজার ১৭৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৬০১ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে, মৃত্যু হয়েছে ১ জনের।

এর আগে সর্বশেষ গত ২৮ জুলাই এর চেয়ে বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছিল। সেদিন ৬১৮ জনের শরীরে সংক্রমণ ধরা পড়ার তথ্য দিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার সামান্য কমে ১১ দশমিক ৬০ শতাংশ হয়েছে, যা আগের দিন ১২ দশমিক ৭২ শতাংশে উঠেছিল।

নতুন শনাক্ত রোগীদের নিয়ে দেশে শনাক্ত মোট কোভিড রোগীর সংখ্যা বেড়ে ২০ লাখ ১৮ হাজার ২১৫ জন হয়েছে। তাদের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে মোট ২৯ হাজার ৩৪০ জনের।

গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৬২ জন কোভিড রোগীর সেরে ওঠার তথ্য দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। তাদের নিয়ে এ পর্যন্ত সুস্থ হলেন ১৯ লাখ ৬০ হাজার ৯৭৭ জন।

গত একদিনে যে ৬০২ জন রোগী শনাক্ত হয়েছে, তাদের মধ্যে ৪৯৬ জনই ঢাকা বিভাগের বাসিন্দা। দেশের ৩১টি জেলায় গত একদিনে নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে।

গত একদিনে যে ব্যক্তি মারা গেছেন তিনি ছিলেন ঢাকা বিভাগের বাসিন্দা। ষার্টোর্ধ এই ব্যক্তি একটি সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

গত এক সপ্তাহে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা আগের সপ্তাহের চেয়ে বেড়েছে। তবে মৃত্যু কিছুটা কমেছে।

সাত দিনে ২ হাজার ৭২৭ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে। এর আগের সপ্তাহে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ছিল ২ হাজার ১২৬ জন। এক সপ্তাহের ব্যবধানে রোগী বেড়েছে ২৮ দশমিক ৩ শতাংশ।

গত সপ্তাহে সারাদেশে করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৫ জনের। এর আগের সপ্তাহে ৬ জনের মৃত্যুর কথা জানিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। মৃত্যু কমেছে ১৬ দশমিক ৭ শতাংশ।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়েছিল ২০২০ সালের ৮ মার্চ। ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের ব্যাপক বিস্তারের মধ্যে গত বছরের ২৮ জুলাই দেশে রেকর্ড ১৬ হাজার ২৩০ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়।

প্রথম রোগী শনাক্তের ১০ দিন পর ২০২০ সালের ১৮ মার্চ দেশে প্রথম মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। ২০২১ সালের ৫ অগাস্ট ও ১০ অগাস্ট ২৬৪ জন করে মৃত্যুর খবর আসে, যা মহামারীর মধ্যে এক দিনের সর্বোচ্চ সংখ্যা।

বিশ্বে করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত মারা গেছে ৬৫ লাখ ২৬ হাজারের বেশি মানুষ। বিশ্বজুড়ে আক্রান্ত ছাড়িয়েছে ৬১ কোটি ২০ লাখ।

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.