।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

খোকসা উপজেলায় মোটরসাইকেল ছিনতাই করে চালককে হত্যার দায়ে দুজনকে আমৃত্যু এবং একজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন কুষ্টিয়ার একটি আদালত।

রোববার দুপুর দেড়টায় কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ অতিরিক্ত আদালত-১ এর বিচারক তাজুল ইসলাম এই রায় ঘোষণা করেন বলে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী (পিপি) অনুপ কুমার নন্দী জানান।

আমৃত্যু কারাদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- কুষ্টিয়া সদর উপজেলার মিলপাড়া এলাকার বাসিন্দা তোফাজ্জেল হোসেনের ছেলে ফজলুর রহমান (৪৪) এবং রাজবাড়ি জেলার বেলগাছী গ্রামের বাসিন্দা মো. মজিবর সেখ (৩৬)।

এ ছাড়া কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলার উত্তর শ্যামপুর গ্রামের বাসিন্দা মজনু সেখের স্ত্রী খুশি বেগমকে (৫৪) যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। রায় ঘোষণার সময় খুশি ছাড়া বাকি দুই আসামি অনুপস্থিত ছিলেন।

মামলার বরাত দিয়ে আইনজীবী বলেন, ২০১৩ সালের ১৬ জুলাই সকাল সাড়ে ৯টায় রাজবাড়ীর কালুখালী উপজেলার বাসিন্দা সজিবদ্দিন সেখের ছেলে ভাড়ায় মোটরসাইকেল চালক নজরুল ইসলাম ওরফে লতিফ (৩০) বাড়ি থেকে বের হয়ে আর ফিরেনি।

পরদিন খোকসা উপজেলার উত্তরশ্যামপুর গ্রামের একটি পাটক্ষেত থেকে বিবস্ত্র ও মস্তকবিহীন দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে লতিফের পরিবার গিয়ে লাশ শনাক্ত করে।

এ ঘটনায় নিহতের বড়ভাই বিল্লাল সেখ বাদী হয়ে তিনজনের নাম উল্লেখ করে খোকসা থানায় মামলা করেন। ২০১৪ সালের ৩০ জুন তিনজনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেন খোকসা থানার এসআই জহিরুল হক।

আইনজীবী আরও বলেন, দণ্ডপ্রাপ্তদের প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।