।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

রাজশাহী শহরে বিদ্যমান ৯৫২ পুকুর সংরক্ষণের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

পুকুর ভরাট বন্ধে জারি করা রুল মঞ্জুর করে সোমবার রায় দেন হাইকোর্ট।

আদালতে আবেদনের পক্ষে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মনজিল মোরসেদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল শেখ সাইফুজ্জামান।

পরে মনজিল মোরসেদ জানান, আদালত কয়েকটি নির্দেশনা দিয়েছেন। 

এক. রাজশাহী শহরে আর যাতে কোনো পুকুর ভরাট ও দখল না হয়, তা বিবাদীদের নিশ্চিত করতে বলেছেন। 

দুই. সিটি মেয়র, পরিবেশ, র‌্যাব ও জেলা প্রশাসনকে বিদ্যমান পুকুরগুলো সংরক্ষণ করার নির্দেশ দেন। 

তিন. পুকুরগুলো যাতে অক্ষত (অরিজিনাল) অবস্থায় থাকে তা নিশ্চিত করতে হবে। 

চার. এ মামলা চলমান থাকবে। 

পাঁচ. রাজশাহীর অনেক পুরাতন সুখান দিঘীর দখল করা অংশ পুনরুদ্ধার করে পূর্বের অবস্থায় ফিরিয়ে এনে সংরক্ষণের নির্দেশ।

তিনি বলেন, রাজশাহী শহরের রেকর্ড অনুসারে ৯৫২টি পুকুর বিদ্যমান রয়েছে।  

আইনজীবী মনজিল মোরসেদ আরো জানান, ২০১৪ সালে রাজশাহীর পুকুর ভরাট ও দখলের সংবাদ গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে জনস্বার্থে হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের পক্ষে রিট করা হয়।  তখন হাইকোর্ট রুল জারি করে বিদ্যমান পুকুরের তালিকা দিতে নির্দেশ দেন। জেলা প্রশাসন ৯৫২ পুকুরের তালিকা আদালতে দাখিল করেন।

ওই রুলের শুনানি শেষে সোমবার রায় দেন হাইকোর্ট।