।। নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী ।।

নর্থবেঙ্গল ইলেকট্রিসিটি সাপ্লাই কোম্পানির (নেসকো) করা বিদ্যুতের লোডশেডিং তালিকায় রাজশাহী মহানগরীর বোয়ালিয়া থানা এলাকায় মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এক ঘণ্টার লোডশেডিং থাকার কথা। কিন্তু বাস্তবতা ভিন্ন। এদিন বেলা ১২টা থেকে ১ পর্যন্ত একঘণ্টা টানা লোডশেডিংয়ের পর মাত্র ১০ মিনিটের জন্য বিদ্যুৎ আসে। এরপর দুপুর পৌনে তিনটায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত টানা দেড় ঘণ্টা ধরে আবার লোডশেডিং চলছিলো।

শুধু একটি এলাকাতেই নয়, রাজশাহীতে প্রায় প্রতিটি এলাকাতেই মঙ্গলবার নেসকোর লোডশেডিং তালিকার বাইরে ঘণ্টার পর ঘণ্টা লোডশেডিং দেয়া হয়। বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গ্রহকদের ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা যায়।

নেসকো রাজশাহীর একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, লোডশেডিং দেয়া হচ্ছে গ্রিড থেকে। তারা নেসকোর করা তালিকা মানছেন না। এ ব্যাপারে তাদের সঙ্গে বারবার যোগাযোগ করা হলেও তারা বলছেন, তাদের কাছে এখনও তাদের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ কোনো নির্দেশ পাঠায়নি। ফলে তালিকা উপেক্ষা করে গ্রিড কর্তৃপক্ষ নিজেদের হিসাব মতো লোডশেডিং দিচ্ছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে নেসকো রাজশাহীর প্রধান প্রকৌশলী আবদুর রশিদ জানান, বিষয়টি সুরাহার জন্য তারা চেষ্টা চালাচ্ছেন।