।। শোবিজ প্রতিবেদন ।।

কিংবদন্তী অভিনেত্রী শর্মিলী আহমেদ আর নেই। শুক্রবার (৮ জুলাই) রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া উন্না ইলাইহি রাজিউন)।

মৃত্যুকালে এই অভিনেত্রীর বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর। তিনি ক্যান্সার আক্রান্ত ছিলেন।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন অভিনয় শিল্পী সংঘের সভাপতি আহসান হাবিব নাসিম।

নাসিম জানান, শর্মিলী আপা অসুস্থ ছিলেন। অবস্থা বেশি খারাপ হওয়ায় তাকে একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়, সেখানেই তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

তিনি আরো জানান, হাসপাতাল থেকে শর্মিলী আপার মরদেহ তার উত্তরার বাসায় নেয়া হচ্ছে। যতোদূর জানতে পেরেছি, বাসায় নেয়ার পর পারিবারিক সদস্যরা জানাজা ও দাফনের সিদ্ধান্ত নিবেন।

শর্মিলী আহমেদের প্রকৃত নাম মাজেদা মল্লিক। ১৯৪৭ সালের ৮ মে রাজশাহীতে তার জন্ম। রাজশাহী বেতারের শিল্পী ছিলেন তিনি। তার প্রথম সিনেমা উর্দু ভাষায় নির্মিত ‘ঠিকানা’ মুক্তি পায়নি। ষাটের দশকে নায়িকা হিসেবে তিনি নাম কামিয়েছেন সুভাষ দত্তের ‘আলিঙ্গন’, ‘আয়না ও অবশিষ্ট’, ‘আবির্ভাব’ সিনেমায়। কিছু উর্দু সিনেমাতেও অভিনয় করেছেন তিনি।

স্বামী পরিচালক রূপকারের (রকিবউদ্দিন আহমেদ) ‘পলাতক’ সিনেমাতেও অভিনয় করেছেন শর্মিলী আহমেদ। স্বাধীনতার পরে ‘রূপালী সৈকতে’, ‘আগুন’, ‘দহন’, ইত্যাদি সিনেমায় অভিনয় করেন। ‘আগুন’ সিনেমায় প্রথম তিনি বয়সী মায়ের চরিত্রে অভিনয় করেন। 

এছাড়াও এ পর্যন্ত প্রায় ৪০০ নাটক অভিনয় করেছেন তিনি। অভিনয় জীবনে মঞ্চ, টিভি ও চলচ্চিত্রের বৈচিত্র্যপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করে সবার মন জয় করেছেন।