।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

দেশ ও জনগণের উন্নয়নে আওয়ামী লীগের অবদান তুলে ধরে দলের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, নৌকা ছাড়া তো গতি নেই বাংলাদেশের। এটাও মনে রাখতে হবে।

বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) আওয়ামী লীগের ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আয়োজিত আলোচনা সভায় (ভার্চ্যুয়াল) প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

২৩-বঙ্গবন্ধু এভিনিউর আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় গণভবন থেকে ভিডিয়ো কনফারেন্সে অংশ নেন তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, নেতৃত্বশূন্য কোন দল নির্বাচন করবে আর জনগণ ভোট দেবে কী দেখে? ওই চোর, ঠকবাজ, এতিমের অর্থ-আত্মসাৎ অথবা খুন করা, অস্ত্র চোরাকারবারী, সাজাপ্রাপ্ত আসামি তাদেরকে এদেশের জনগণ ভোট দেবে দেশ পরিচালনার জন্য? তা তো এদেশের জনগণ দেবে না।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের মানুষ এ ব্যাপারে যথেষ্ট সচেতন। তারা (দেশবাসী) জানে আওয়ামী লীগ নৌকা প্রতীকে, নৌকার যে প্রয়োজন এবারের বন্যায়ও তো নৌকার জন্য হাহাকার। তা নৌকা ছাড়া তো গতি নেই বাংলাদেশের। এটাও মনে রাখতে হবে। আওয়ামী লীগ তার জন্মলগ্ন থেকে এদেশের মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছে।

শেখ হাসিনা বলেন, স্বাধীনতা শুধু এনে দেয়নি, স্বাধীনতার সুফল এখন জনগণের ঘরে ঘরে পৌঁছাচ্ছে। প্রত্যেকটা বাড়িতে আমি যেমন বিদ্যুতের ব্যবস্থা করেছি এবং আমাদের লক্ষ্য জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের এই বাংলাদেশে একটি মানুষও ভূমিহীন থাকবে না। সবার জন্য ভূমি এবং গৃহ আমরা তৈরি করে দিচ্ছি। খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা আমরা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশটা আমাদের আমরা যতটুকু চিনি, জানি এদেশের প্রকৃতি, এদেশের পরিবেশ। এদেশের মানুষ, মানুষের কল্যাণ। আওয়ামী লীগ যতটা বুঝবে অন্যরা তা বুঝে না। কারণ বুঝবে কী করে বিএপির হৃদয় তো থাকে পাকিস্তানে। তাদের মনেই আছে পাকিস্তান। দিল মে হ্যায় পেয়ারে পাকিস্তান। সারাক্ষণ গুণ গুণ করে ঐ গানই গায়। আয় মেরে জান পেয়ারে… আখো কী তারা, আসমান কী চাঁদ, মেরে জান পাকিস্তান। এই হলো খালেদা জিয়ার কথা।

তিনি বলেন, যাদের মানসিকতা খারাপ তারা কখনো বাংলাদেশের ভালো চাইবে না। এটা খুব স্বাভাবিক। এটা নিয়ে আপনাদের এত দুঃখ, চিন্তা করার কিছুই নাই। ওদের যত কথা না বলা যায় ততই ভালো। ওরা বাংলাদেশের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করে না। বরং সবগুলোকে গাট্টি বাইন্ধা পাকিস্তানে পাঠায়ে দিলেই ভালো হয়। পাকিস্তানে এখন যে অবস্থা ওখানে থাকলেই ভালো থাকবে। এখনো লাহোরে সোনার দোকানে খালেদা জিয়ার বড় ছবি আছে। ওই দোকানের সোনার গহনা তার খুব প্রিয়। তাদের মানসিকতা ওদিকে। আমাদের বাংলাদেশের জন্য না।

‘জিয়া-খালেদা-এরশাদ কারো জন্মই বাংলাদেশে নয়’ জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ‘এটাও ঠিক এদের জন্মও তো বাংলাদেশে না। না জিয়ার জন্ম বাংলাদেশ, না খালেদা জিয়ার। কারো জন্মই না। এরশাদেরও তো জন্ম কুচবিহারে। একমাত্র আমার বাবাই এ দেশের মাটিতে জন্ম। কাজেই মাটির টান আলাদা। এখানে আমাদের নাড়ি টান। কাজেই এদেশের মানুষের ভাগ্য গড়াটাই আমাদের লক্ষ্য। আওয়ামী লীগের আদর্শই হচ্ছে জনগণের সেবা করা।’

সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় ও মহানগর নেতারা।

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.