।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া গুরুতর অসুস্থ হলে শুক্রবার (১০ জুন) দিনগত রাত সোয়া ৩টার দিকে এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার শারীরিক অবস্থা বিবেচনা করে হাসপাতালের ক্রিটিকাল কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।

শনিবার (১১ জুন) বেলা ১১টার দিকে তার চিকিৎসক বোর্ডের সদস্যরা বৈঠকে বসেছেন। তারা পরীক্ষা নিরীক্ষার ফলাফল পর্যালোচনা করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত জানাবেন। এ বিষয়ে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বিকাল ৩টায় গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বিস্তারিত জানাবেন বলে জানিয়েছেন প্রেস উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান।

মেডিক্যাল বোর্ডের চিকিৎসকদের মধ্যে আছেন- প্রফেসর এফএম সিদ্দিকী, প্রফেসর ডা. শাহবুদ্দীন তালুকদার, প্রফেসর ডা. এজেড এম জাহিদ হোসেন প্রমুখ।

দুপুর সাড়ে ১২টায় শায়রুল কবির খান জানান, মেডিক্যাল বোর্ডের বৈঠক শেষ হয়নি। বিকেল ৩টায় মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সংবাদ সম্মেলনে সবশেষ তথ্য জানাবেন।

এর আগে শনিবার ভোর ৫টার দিকে মহাসচিব সাংবাদিকদের বলেন, রাত দুটার দিকে ডা. জাহিদের কাছে খবর পাই ম্যাডাম অসুস্থবোধ করছেন। তাকে তাৎক্ষণিকভাবে হাসপাতালে নিতে হবে। পরে চিকিৎসকদের পরামর্শে তাৎক্ষণিকভাবে তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। চিকিৎসকরা ইতোমধ্যে যে পরীক্ষা নিরিক্ষা করেছেন সে পরীক্ষা নিরীক্ষার মধ্যে দিয়ে দেখা গেছে তার হার্টে সমস্যা দেখা দিয়েছে।  আল্লাহর হুকুমে এমনিতে তিনি স্টাবল আছেন। এনজিওগ্রাম করার পরে বোঝা যাবে সমস্যাটা কোথায়।

৭৬ বছর বয়সী খালেদা জিয়া বহু বছর ধরে আর্থ্রাইটিস, ডায়াবেটিস, কিডনি, ফুসফুস, চোখের সমস্যাসহ নানা জটিলতায় ভুগছেন। ২০২০সালের ২৫মার্চ কারাগার থেকে বাসায় ফেরার পর ইতোমধ্যে ৫দফা এভার কেয়ার হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন।