।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

রাজশাহীতে বিএনপির সমাবেশে সাংবাদিকরা হামলার শিকার হয়েছেন। বৃহস্পতিবার বিকেলে নগরীর ভুবন মোহন পার্কে রাজশাহী নগর ও জেলা বিএনপির আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশে হামলার শিকার হন অন্তত ছয়জন সাংবাদিক।

হামলার শিকার সাংবাদিকরা হলেন, চ্যানেল ২৪-এর ক্যামেরাপার্সন লেলিন, সময় টেলিভিশনের ক্যামেরাপার্সন আবদুস সালাম, দীপ্ত টেলিভিশনের রফিকুল ইসলাম, এসএ টিভির ক্যামেরাপার্সন আবু সাঈদ, জিটিভির ক্যামেরাপার্সন খোকন এবং নিউজ২৪ এর ক্যামেরাপার্সন বাপ্পী।

প্রত্যক্ষদশীরা জানান, বিকেলে বিএনপির প্রতিবাদ সমাবেশ চলাকালে যুবদলের দুই গ্রুপ হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়ে। সেই দৃশ্য ধারণ করতে গেলে ছয় ক্যামেরাপার্সনের ওপর প্রথমে চড়াও হন দুই নারী। পরে যুবদলের অন্য নেতাকর্মীরা সাংবাদিকদের লাঞ্ছিত করেন। পরে সাংবাদিকরা সমাবেশ বয়কট করেন।

এই সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য সেলিমা রহমান। তাঁর সামনেই সাংবাদিকদের লাঞ্ছিত করা হয়।

সমাবেশে বক্তব্য দিতে গিয়ে জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু সাঈদ চাঁদ বলেছেন, ‘সাংবাদিক ভাইদের কাছে আমি ক্ষমা চাই। এ ঘটনা কারা ঘটিয়েছে বুঝতে পারছি না। বিএনপি একটি বৃহৎ দল। ভুলত্রুটি হতেই পারে। আপনারা ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন আমার ছোট ভাইদের।’

আরইউজের নিন্দা

সাংবাদিকদের ওপর হামলার ঘটনায় রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়ন (আরইউজে) তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এক বিবৃতিতে আরইউজে সভাপতি রফিকুল ইসলাম এবং সাধারণ সম্পাদক তানজিমুল হক হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন।
আরইউজে সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক বিবৃতিতে বলেন, বৃহস্পতিবার বিকালে নগরীর ভূবনমোহন পার্কে রাজশাহী মহানগর ও জেলা বিএনপি আয়োজিত সমাবেশে পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে সাংবাদিকদের ওপর হামলা চালানো হয়। এসময় বিএনপি নেতাকর্মীদের হামলায় বেসরকারি টেলিভিশন ‘চ্যানেল ২৪’ এর ক্যামেরাপারসন লেলিন, সময় টিভির সালাম, দীপ্ত টিভির ইসলাম, এসএ টিভির আবু সাঈদ, গাজী টিভির খোকন এবং নিউজ ২৪ এর বাপ্পী আহত হন। হামলাকারীরারা চ্যানেল ২৪ এর ক্যামেরা ভেঙে ফেলে এবং ছিনিয়ে নেবার চেষ্টা করে।
আরইউজে সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের দাবি জানিয়ে বলেন, বিএনপি নেতৃবৃন্দকে অবিলম্বে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে শক্ত সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। অন্যথায় আরইউজে রাজশাহীতে কর্মরত গণমাধ্যম কর্মীদের নিয়ে কঠোর আন্দোলন কর্মসূচি ঘোষণা করতে বাধ্য হবে।