।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞার প্রভাব মোকাবিলায় আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ), বিশ্বব্যাংক এবং জি২০ গ্রুপে ব্রাজিলের সহায়তা চেয়েছে রাশিয়া। হাতে আসা এক নথির বরাতে এই খবর জানিয়েছে ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

বার্তা সংস্থাটি জানিয়েছে, ব্রাজিলের সহায়তা চেয়ে অর্থমন্ত্রী পাওলো গুয়েদেসের কাছে চিঠি দিয়েছেন রুশ অর্থমন্ত্রী অ্যান্টন সিলুয়ানোভ। এই চিঠিতে ‘রাজনৈতিক দোষারোপ, আন্তর্জাতিক আর্থিক প্রতিষ্ঠান এবং আন্তর্জাতিক ফোরামগুলোতে বৈষম্য ঠেকাতে’ ব্রাজিলের সহায়তা চেয়েছে রাশিয়া।

রুশ অর্থমন্ত্রী অ্যান্টন সিলুয়ানোভ লিখেছেন, ‘আইএমএফ ও বিশ্বব্যাংকের সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়ায় রাশিয়ার অংশগ্রহণ সীমিত করতে কিংবা বহিষ্কারও করতে নেপথ্যে কাজ চলছে’। এসব সংস্থায় রাশিয়া কোন ধরনের বাধার মুখে পড়ছে সে বিষয়ে চিঠিতে বিস্তারিত জানানো হয়নি।

ওই চিঠিতে ইউক্রেন যুদ্ধের কোনও উল্লেখ নেই। ৩০ মার্চ তারিখের চিঠিতে গত বুধবার ব্রাসিলিয়ায় ব্রাজিলের অর্থমন্ত্রীর কাছে হস্তান্তর করেন রুশ রাষ্ট্রদূত।

রুশ মন্ত্রী লিখেছেন, ‘আপনারা জানেন, যুক্তরাষ্ট্র এবং তাদের সহযোগীদের আরো করা নিষেধাজ্ঞার কারণে রাশিয়া অর্থনীতি এবং আর্থিক পরিস্থিতি নিয়ে চ্যালেঞ্জিং সময় পার করছে।’

ওই চিঠির বিষয়ে জানতে চাইলে ব্রাজিলের অর্থ মন্ত্রণালয়ের আন্তর্জাতিক অর্থনীতি বিষয়ক সচিব এরিভালদো গোমেজ ইঙ্গিত দেন ব্রাসিলিয়া চাইছে বহুপাক্ষিক সংস্থাগুলোর আলোচনায় রাশিয়ার অংশগ্রহণ অব্যাহত থাকুক।

এরিভালদো গোমেজ বলেন, ‘ব্রাজিলের দৃষ্টিকোণ থেকে… আলোচনার সুযোগ খোলা রাখা জরুরি। আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো আমাদের সেতু এবং আমাদের মূল্যায়ন হচ্ছে এসব সেতু সংরক্ষণ করতে হবে।’

গত সপ্তাহে মার্কিন অর্থমন্ত্রী জ্যানেট ইয়েলেন জানিয়েছেন, রাশিয়া উপস্থিত থাকলে জি২০ গ্রুপের কোনও বৈঠকে অংশ নেবে না যুক্তরাষ্ট্র। কারণ হিসেবে ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসনের কথা উল্লেখ করেন তিনি।

রুশ অর্থমন্ত্রী অ্যান্টন সিলুয়ানোভ জানিয়েছেন রাশিয়ার আন্তর্জাতিক রিজার্ভের প্রায় অর্ধেক জব্দ করা হয়েছে এবং বৈদেশিক বাণিজ্যের লেনদেন আটকে দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র এবং তাদের স্যাটেলাইটগুলো আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় থেকে রাশিয়াকে বিচ্ছিন্ন করে ফেলার নীতি বাস্তবায়ন করছে।’

সূত্র: রয়টার্স