।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

করোনার প্রকোপে গেল দু’বছর বন্ধ ছিল বাংলা নববর্ষ বরণের আয়োজন। এবার তাই একটুও কার্পণ্য ছিল না বাঙালির প্রাণের বর্ষবরণ আয়োজনে। গানে, নাচে পুরো আয়োজন ছিল প্রাণবন্ত। বৃহস্পতিবার দিনভর নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে রাজশাহীতে বর্ষবরণ করা হয়েছে।

সকালে ‘নব আনন্দে জাগো আজি, নব রবি কিরণে’ গানে গানে রাজশাহীর পদ্মাপারে বটতলায় নতুন বছরের নতুন সূর্যকে বরণ করে নেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের কর্মীরা। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৬ টার দিকে ঘোষপাড়া পদ্মামন্দিরে পাশে বটতলায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে রাজশাহীবাসী বর্ষবরণে মেতে উঠে।

পরে নগরের আলুপট্টি মোড় থেকে বের হয় মঙ্গল শোভাযাত্রা। যেখানে যোগ দেন বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ। এ সময় সকলের কণ্ঠেই ছিল অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ বিনির্মাণের শপথ।

মঙ্গল শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণ করেন, রাজশাহী সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, রাজশাহী মুক্তিযুদ্ধ পাঠাগার, রাজশাহী থিয়েটার, জয় বাংলা সাংস্কৃতিক জোট, ঋত্বিক ঘটক ফিল্ম সোসাইটি, রাজশাহী আবৃত্তি চর্চা কেন্দ্র, রাজশাহী ফিল্ম সোসাইটি।

এছাড়াও রাজশাহী কলেজের আয়োজনে সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে বর্ণাঢ্য মঙ্গল শোভাযাত্রা রবীন্দ্রনাথ ভবন থেকে বের করে কলেজ ক্যাম্পাস ঘুরে পুনরায় সেখানে গিয়ে শেষ হয়। এই সময় নানান আয়োজনে বাঙালির সংস্কৃতি বিভিন্ন সাজে সেজে গান-বাজনার তালে ফুটিয়ে তোলে।

অপরদিকে রাজশাহী জেলা শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণ থেকে বেলা ১১টার দিকে একটি মঙ্গল শোভাযাত্রা বের করা হয়। পরে অনুষ্ঠিত হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বিভাগীয় কমিশনার জিএসএম জাফরউল্লাহ। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক আবদুল জলিল।