।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়া চীনের বৃহত্তম বাণিজ্যিক শহর সাংহাইয়ে লকডাউন ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। করোনা মহামারির দুই বছরের মধ্যে প্রথমবার শহরটিতে লকাডাউন জারি করা হলো। ২ কোটি ৫০ লাখের মানুষের শহরে পূর্বে লকডাউন আওতার বাইরে থাকে।

সাংহাইয়ের পরিস্থিতি এখন ভিন্ন। প্রতিদিনই রেকর্ড শনাক্ত হচ্ছে। এ অবস্থায় দুই ধাপে লকডাউন ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। প্রথম ধাপ সাংহাইয়ের পূর্বাঞ্চলে আজ সোমবার থেকে আগামী ১ এপ্রিল পর্যন্ত। আর পশ্চিমাঞ্চলে ১ থেকে আগামী ৫ এপ্রিল পর্যন্ত। গণপরিবহণ, কারখানা, অফিস বন্ধ রাখা বাধ্যতামূলক।

চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশনের তথ্য অনুযায়ী, রবিবার দেশজুড়ে সাড়ে চার হাজারের বেশি মানুষের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

স্থানীয় প্রশাসন উই চ্যাটে নির্দেশনাবলী প্রকাশ করে জানিয়েছে, জনসাধারণকে শহরের মহামারি প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে সমর্থন করতে হবে। সেই অনুযায়ী কাজ করতে হবে। বাসিন্দাদের বাড়িতে থাকতে হবে এবং বাইরের বিশ্বের সঙ্গে কোনও যোগাযোগ নেই তা নিশ্চিত করার জন্য কঠোর অবস্থানে থাকবে প্রশাসন। শহর বন্ধ রেখে কর্তৃপক্ষ ব্যাপকভাবে করোনা পরীক্ষা করবেন।

গত এক মাস ধরে সাংহাইতে করোনা সমানে ছড়াচ্ছে। চীন এখন ওমিক্রন ভাইরাসের মোকাবিলায় কোনও ঝুঁকি নিতে চায় না। এতদিন চীনা কর্তৃপক্ষ জানাচ্ছিলেন, অর্থনীতির স্বার্থেই এই শহর চালু রাখা জরুরি। এখন দুই পর্বে লকডাউন ঘোষণা করা হলো।

সূত্র: বিবিসি।