।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলায় একজনকে হত্যার দায়ে আটজনকে যাবজ্জীবন দিয়েছেন আদালত।

তাছাড়া আদালত তাদের ২৫ হাজার টাকা করে জরিমানা করেছেন। জরিমানা না দিলে তাদের আরও এক বছরের সাজার আদেশ দিয়েছেন আদালত।

কুষ্টিয়ার জেলা ও দায়রা জজ তাজুল ইসলাম বৃহস্পতিবার বেলা আড়াইটায় এই রায় ঘোষণা করেন।

সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন মিরপুর উপজেলার কলিকাপুর গ্রামের মোয়াজ্জেম হোসেনে ছেলে মাসুদ মিয়া, শের আলীর ছেলে সিদ্দিক মিয়া, বড়িয়া গ্রামের নরুল ইসলামের ছেলে মাসুম মোল্লা, গাংনী উপজেলার হারাভাঙ্গা গ্রামের আজগর আলীর ছেলে গিয়াস উদ্দিন, শের আলী মোল্লার ছেলে মেসকাত আলী মোল্লা, দৌলতপুর উপজেলার সালিমপুর গ্রামের নুর মোহম্মাদ বিশ্বাসের ছেলে সোহেল রানা, কামাল হোসেনের ছেলে ওয়াসিম রেজা ও কুষ্টিয়া সদর উপজেলার চৌড়হাস এলাকার লালন শেখের ছেলে জাকির হোসেন।

তাদের মধ্যে মাসুদ মিয়া, মাসুম মোল্লা ও ওয়াসিম রেজা পলাতক রয়েছেন।

আদালতের পিপি অনুপ কুমার নন্দী মামলার নথির বরাতে জানান, ২০০৯ সালের ১২ জুলাই মিরপুর উপজেলার বাড়িয়া গ্রামের দেলোয়ার হোসেনের ছেলে ফিরোজ আহমেদ কাজল (২৮) মটরসাইকেলে বাড়ি থেকে ভেড়ামারা যাওয়ার পথে নিঁখোজ হন। এরপর বিভিন্ন মোবাইল ফোন নম্বর থেকে পরিবারের কাছে দুই লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হয়। পরে তার বাবা মিরপুর থানায় মামলা করেন।

মামলা তদন্ত শেষে ২০০৯ সালের ২৪ অগাস্ট ১১ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেন তদন্ত কর্মকর্তা মিরপুর থানার এসআই আব্দুল আলীম।  

পিপি বলেন, সাক্ষ্য-প্রমাণে ৮ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তাদের দোষী সাব্যস্ত করে এই সাজা দেন আদালত। পলাতক আসামিরা যেদিন ধরা পড়বেন সেদিন থেকে তাদের সাজা শুরু হবে।