।। শোবিজ প্রতিবেদন ।।

বাংলাদেশ ও ভারতের রাষ্ট্রীয় প্রযোজনায় তৈরি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বায়োপিক ‘মুজিব: একটি জাতির রূপকার’ যাচ্ছে পৃথিবীর অন্যতম প্রাচীন ও বিখ্যাত চলচ্চিত্র আয়োজন কান উৎসবের বাজারে।

আগামী মে  মাসে সেখানেই আলোচিত এই সিনেমার টিজারের মুক্তি দেয়া হবে। মার্কিন সাময়িকী ভ্যারাইটিকে ছবির পরিচালক শ্যাম বেনেগাল বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানান, বাণিজ্যিকভাবে বিপণনের জন্য ছবিটি নিয়ে যাওয়া হবে। তখনই আসবে টিজারটি।

শ্যাম বেনেগাল বলেন, ‘কানের পরিবেশকরা এই সিনেমার প্রতি আগ্রহী হবেন বলে মনে করছি। কারণ এটির প্রেক্ষাপট শক্তিশালী। আর এই মার্কেটে বহুল সংখ্যক প্রযোজকরা আসবেন। এটি বিশ্বের বৃহত্তম বাজার। তাই চলচ্চিত্রটি নিয়ে আমি আশাবাদী।’

ছবি তৈরির নেপথ্য প্রসঙ্গে শ্যাম বেনেগাল বলেন, ‘ছবিটি তৈরির উদ্দেশ্য হলো দুই দেশের সাংস্কৃতিক বিনিময়। আর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিই বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে এটি নির্মাণের প্রস্তাবটি দেন। শেখ হাসিনা আনন্দের সঙ্গেই তা গ্রহণ করেন। নির্মাণের প্রস্তাব পাওয়ার পরপরই আমি তা লুফে নিই। কারণ আমি বিশ্বাস করি যে, বঙ্গবন্ধু আমাদের উপমহাদেশের সেই সময়ের সবচেয়ে অনুপ্রেরণাদায়ী ব্যক্তিত্বদের একজন ছিলেন। আমরা যদি তার রাজনৈতিক যাত্রা দেখি, গল্পটি সত্যিই অসাধারণ, খুব শক্তিশালী এবং একই সাথে গভীরভাবে দুঃখজনকও।’

এদিকে, চলতি বছরই চলচ্চিত্রটি পর্দায় আসার কথা রয়েছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০২তম জন্মদিনে (১৭ মার্চ, ২০২২) হয়েছে এর পোস্টার উন্মোচন।

জাতির জনকের চরিত্রে অভিনয় করা চিত্রনায়ক আরিফিন শুভ জানান, ছবিটি এখন সম্পাদনার টেবিলে আছে। এতে প্রচুর ভিএফএক্স রয়েছে। তাই সম্পাদনার কাজটি বেশ সময় নিয়ে হচ্ছে।

২০১৯ সালের মার্চে বাংলাদেশে ‘মুজিব: একটি জাতির রূপকার’র দৃশ্যধারণ শুরুর কথা থাকলেও করোনাভাইরাস মহামারির কবলে তা পিছিয়ে গত বছরের জানুয়ারিতে গড়ায়।

মুম্বাইয়ের দাদা সাহেব ফিল্ম সিটি, গোরেগাঁও ফিল্ম সিটিসহ বেশ কয়েকটি এলাকায় বঙ্গবন্ধুর ধানমন্ডির ৩২ নম্বরের বাড়ি, টুঙ্গিপাড়ার গ্রামের বাড়ির আদলে সেট সাজিয়ে দৃশ্যধারণ চলে।

ছবিতে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা হয়েছেন নুসরাত ফারিয়া। এছাড়াও বঙ্গবন্ধুর স্ত্রী ফজিলাতুন নেছা মুজিবের চরিত্রে অভিনয় করবেন নুসরাত ইমরোজ তিশা। অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে দেখা যাবে, খায়রুল আলম সবুজ (লুৎফর রহমান), দিলারা জামান (সাহেরা খাতুন), সায়েম সামাদ (সৈয়দ নজরুল ইসলাম), শহীদুল আলম সাচ্চু (এ কে ফজলুল হক), প্রার্থনা দীঘি (ছোট রেনু), রাইসুল ইসলাম আসাদ (আবদুল হামিদ খান ভাসানী), গাজী রাকায়েত (আবদুল হামিদ), তৌকীর আহমেদ (সোহরাওয়ার্দী), সিয়াম আহমেদ (শওকত মিয়া), মিশা সওদাগর (জেনারেল আইয়ুব খান), এলিনা (বেগম খালেদা জিয়া) ও জায়েদ খানকে (টিক্কা খান)।