।। বাংলা ট্রিবিউন, ঢাকা ।।

রমজান ও ঈদকে সামনে রেখে তৎপর জাল নোট চক্রের সদস্যরা। রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় জাল নোট ছড়িয়ে দিতে তারা ইতোমধ্যে অবস্থানও নিয়েছে। সম্প্রতি কয়েকটি অভিযানে জাল নোট চক্রে জড়িত কয়েকজনকে গ্রেফতারের পর জিজ্ঞাসাবাদে চাঞ্চল্যকর এ তথ্য পেয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

রমজান ও ঈদকে সামনে রেখে এরইমধ্যে এজেন্টদের হাতে চলে গেছে বিপুল জাল নোট। চক্রে জড়িত যারা পলাতক রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে অভিযান চালাচ্ছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা বলছেন, জাল নোট চক্রের সদস্যরা নানান কৌশল নিচ্ছে। এ কাজে তারা অস্থায়ীভাবে বাসা ভাড়াও নিচ্ছে। তবে গোয়েন্দা তথ্য পেলেই চালানো হচ্ছে অভিযান। গ্রেফতারও হচ্ছে অনেকে।

সম্প্রতি কয়েকটি অভিযানের পর যারা পালিয়ে গিয়েছিল, তাদের কয়েকজনের পরিচয় শনাক্ত করা হয়েছে। তাদের ধরতেও নজরদারি বাড়ানো হয়েছে।

রাজধানীতে জাল নোট চক্রের সাত সদস্যকে গ্রেফতারের পর আইনশৃঙ্খলা বাহিনী জানতে পারে রোজা ও ঈদকে ঘিরে প্রায় দুই কোটি টাকার জাল নোট সরবরাহের পরিকল্পনা ছিল তাদের। বিভিন্ন জায়গায় এজেন্টদের হাতে নোটগুলো চলেও গেছে।

আগে এ চক্র এক হাজার ও ৫০০ টাকার নোট জাল করতো বলে জানা গেছে। এখন ৫০ টাকার নোটও জাল করছে। ছোট নোটগুলো কম যাচাই হয় বলেই এমনটা করছে তারা। এ কাজের জন্য বিশেষ অ্যাপস ব্যবহার করে জাল টাকা প্রিন্ট করতো ওরা।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)-এর গোয়েন্দা শাখার অতিরিক্ত কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার বলেন, উৎসবগুলোতে জাল টাকা ছড়ানোর প্রবণতা দেখা যায়। এ সময়টায় আমরা নজরদারি বাড়িয়ে থাকি।

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, যারা এর আগে গ্রেফতার হয়েছিল ও জামিনে আছে তাদের ওপর নজর রাখছি।