।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলায় দুই তরুণ-তরুণীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

সোমবার রাতে উপজেলার মাঝিহট্ট ইউনিয়নের পাশাপাশি দুটি গ্রাম থেকে দুজনের লাশ উদ্ধার করা হয় বলে শিবগঞ্জ থানার ওসি দীপক কুমার দাস জানান।

তিনি বলেন, “সোমবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে মাসিমপুর চালুঞ্জা গ্রামের আজমেরি খাতুন (১৯) তার ঘরের সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন। তার আধা ঘণ্টা পর পাশের দামগারা কারিগরপাড়া গ্রামের সবুজ মিয়া (২১) তার ঘরে গলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যা করেন।

“পরিবারের লোকজন বলছে, আজমেরি খাতুনের সঙ্গে সবুজ মিয়ার প্রেমের সম্পর্ক ছিল। ধারণা করা হচ্ছে, প্রচণ্ড আবেগে তারা আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।“

এ ঘটনায় অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে বলে জানান দীপক কুমার।

মাঝিহট্ট ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আকবার আলী তালুকদার গণমাধ্যমকে বলেন, “এক মাস আগে মোবাইল ফোনে ভিডিও কলের মাধ্যমে প্রবাসী এক তরুণের সঙ্গে আজমেরির বিয়ে হয়। হয়তো এ বিয়ে মেয়েটি মানতে পারেনি।

স্থানীয়দের বরাতে ওসি বলেন, আজমেরির পরিবারের আর্থিক অবস্থা ভাল। সবুজ সড়ক মেরামতের কাজে নিয়োজিত ছিল। ফলে আজমেরির পরিবার এই সম্পর্ক মেনে নিতে পারেননি।

ওসি আরও বলেন, সোমবার রাতেও আজমেরি ও সবুজের মধ্যে কথা হয়েছে। তখনই হয়তো তারা আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত নেন।