।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

অবশেষে ভোজ্যতেল তথা সয়াবিন ও পাম অয়েলের ওপরে স্থানীয় উৎপাদন ও ব্যবসায়ী পর্যায়ে সব ধরনের মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) প্রত্যাহার করা হয়েছে।

সোমবার (১৪ মার্চ) জাতীয় রাজস্ব বোর্ড থেকে এ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, আজ থেকে এটি কার্যকর হবে। আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত ব্যবসায়ীরা এ সুবিধা পাবেন। যদিও ব্যবসায়ীরা আমদানি পর্যায়ে ভ্যাট প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে আসছিলেন। তবে প্রজ্ঞাপনে আমদানির বিষয়ে কোনও কিছু বলা হয়নি।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল সচিবালয়ের ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে জানিয়েছিলেন, ‘বাজার নিয়ন্ত্রণে রাখতে ভ্যাট প্রত্যাহার করা হয়েছে।’

সেদিন অবশ্য অর্থমন্ত্রী বলেছিলেন, ভোজ্যতেল, চিনি, ছোলাসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের ওপরে আরোপিত শুল্ক প্রত্যাহার করা হয়েছে। সয়াবিনের উৎপাদন পর্যায়ে ১৫ শতাংশ এবং ভোক্তাপর্যায়ে ৫ শতাংশ ভ্যাট প্রত্যাহার করা হয়েছে।

এর আগে ব্যবসায়ীদের দাবির মুখে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ভোজ্যতেলের ওপর ১৫ শতাংশ ভ্যাট প্রত্যাহার করতে চিঠি দিয়েছিল এনবিআরকে।

এদিকে ভোজ্যতেল আমদানি পর্যায়ে ১০ শতাংশ ভ্যাট এবং ভোক্তা পর্যায়ে ৫ শতাংশ ভ্যাট কমছে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। একইসঙ্গে ভোজ্যতেল উৎপাদন পর্যায়ে ১৫ শতাংশ ভ্যাট প্রত্যাহার করা হবে বলে জানান তিনি। সোমবার দুপুরে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে বিশ্ব ভোক্তা-অধিকার দিবস উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।