।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

কক্সবাজারের বদরখালীতে ছয় বছর আগে এক ব্যক্তিকে অপহরণ ও হত্যার দায়ে তার তিন ভাতিজাকে মৃত্যুদণ্ড এবং আরেক আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

চট্টগ্রামের বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মোজাম্মেল হক রোববার এই রায় দেন।

সর্বোচ্চ সাজার আদেশ পাওয়া তিন ভাই আবু বক্কর সিদ্দিক, ইউনুছ হোছাইন মানিক ও ইব্রাহীম মোস্তফা আবু কাইয়ুম কক্সবাজার জেলায় চকরিয়া উপজেলার বদরখালী ইউনিয়নের মগনামা পাড়া এলাকার নূর আহমদের ছেলে।

আপন চাচা নুরুল হুদাকে হত্যার দায়ে ৩০২ ধারায় তাদের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে আদালত। পাশাপাশি অপহরণের ঘটনায় ৩৬৪ ধারায় দেয়া হয়েছে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড।

নুরুল হুদাকে অপহরণের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে ওই এলাকার নুরুল আজিমের ছেলে মোহাম্মদ সোহায়েতকেও যাবজ্জীবন সাজা দিয়েছে আদালত।

তবে অপরাধে সংশ্লিষ্টতা প্রমাণিত না হওয়ায় সোহায়েতের ভাই মো. সাফায়েতকে খালাস দেয়া হয়েছে রায়ে।

দণ্ডিতদের মধ্যে আবু বক্কর সিদ্দিক ও মোহাম্মদ সোহায়েত কারাগারে আছেন; বাকিরা পলাতক।

রায়ের পর এ আদালতে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মো. আইয়ুব খান সাংবাদিকদের বলেন, “রায়ে আমরা সন্তুষ্ট।”

অন্যদিকে আসামিপক্ষের আইনজীবী কফিল উদ্দিন চৌধুরী বলেছেন, পূর্ণাঙ্গ রায় দেখে তার মক্কেলরা পরবর্তী পদক্ষেপ নেবেন।

মামলার বিবরণ অনুযায়ী, চিংড়ি ঘের, জমি ও সেসময়ে হওয়া ইউপি নির্বাচন নিয়ে নুরুল হুদার সঙ্গে তার ভাইয়ের ছেলেদের বিরোধ ছিল।

এর জেরে ২০১৬ সালের ৩০ জুন বদরখালী ফেরিঘাট এলাকা থেকে তাকে অটোরিকশায় করে তুলে নিয়ে যায় আসামিরা। পরে ফেরিঘাটের দক্ষিণে ঠুটিয়াখালী মাটির কিল্লা এলাকায় নুরুল হুদার গলাকাটা লাশ পাওয়া যায়।

ওই বছর ২ জুলাই নুরুল হুদার ছেলে মোহাম্মদ শাহজাহান বাদী হয়ে এ হত্যা মামলা দায়ের করেন। ২০১৬ সালের ১৮ নভেম্বর ৫ জনকে আসামি করে অভিযোগপত্র জমা দেয় পুলিশ।

মামলার ১৮ জন সাক্ষীর মধ্যে ১৩ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে রোববার এ রায় দিল আদালত।