।। নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী ।।

সম্প্রতি রাজশাহী ওয়াসা পানির দাম তিনগুণ বাড়ানোর প্রতিবাদে রাজশাহীতে সামাজিক ও রাজনৈতিকভাবে গড়ে উঠা আন্দোলনে একাত্মতা প্রকাশ করে সমর্থন জানিয়েছেন রাজশাহী-২ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা।

রোববার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১১টায় নগরীর হড়গ্রাম এলাকায় নিজের ব্যক্তিগত কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে তিনি এ সমর্থন জানান।

সংবাদ সম্মেলনে ফজলে হোসেন বাদশা বলেন, রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান হলেও ওয়াসাকে বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান হিসেবে রূপ দেয়ার চেষ্টা চলছে। খোঁড়া কৌশল অবলম্বন করে জনগণের সেবা নিশ্চিত করার পরিবর্তে তারা লাভ-লোকশানের হিসেব কশছে। এমনটি আশা করি না। এটি পুরোপুরি অযৌক্তিক।

বাদশা বলেন, সবার আগে জনগণকে সুপেয় পানি সরবরাহ করা ওয়াসার মূল দায়িত্ব। এটি পালনে তারা ব্যর্থ হলে সে দায় তাদেরই। অধিক মূল পরিশোধের মাধ্যমে জনগণ তাদের লোকশানের দায়িত্ব নিতে পারে না। আমরা ওয়াসাকে দানব হিসেবে দেখতে চাই না, সেবামূলক বিনয়ী প্রতিষ্ঠান হিসেবে দেখতে চাই।

সংবাদ সম্মেলনে পানির দাম বাড়ানোয় চলমান বিভিন্ন আন্দোলন ও কর্মসূচিকে পুরোপুরি সমর্থন দেন দেশের বর্ষিয়ান এই রাজনীতিক। তিনি বলেন, রাজশাহীর মানুষ বরাবরই সংগ্রামী। আমরা লড়াইয়ের মাধ্যমে অধিকার ছিনিয়ে আনতে জানি। পানির অযৌক্তিক মূলবৃদ্ধির ক্ষেত্রেও সেটির ব্যত্যয় ঘটেনি।

তিনি আরও বলেন, লক্ষ্য করছি- জনগণ সামাজিক ও রাজনৈতিকভাবে ওয়াসার এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ করছে। আমি এলাকার সংসদ সদস্য হিসেবে এটিকে পুরোপুরি সমর্থন করি। জনগণের নৈতিক স্বার্থে এটি আমার দায়িত্ব। তারা বৃহৎ কোন কর্মসূচিতে গেলে আমি সবসময় তাদের পাশে আছি।

সংবাদ সম্মেলনে রাজশাহী মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক দেবাশিষ প্রামানিক দেবু, জেলার সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আশরাফুল হক তোতাসহ দলের অন্যান্য নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

পানির মান নিয়ে রাজশাহী নগরবাসীর অসন্তোষের মধ্যেই গত জানুয়ারির শুরুতে পানির দাম আগের মূল্যের তিন গুণ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয় ওয়াসা। এ নিয়ে প্রতিষ্ঠানটির ওয়েবসাইটে ও পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রচার করা হয়। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ফেব্রুয়ারি থেকে নগরবাসীকে অতিরিক্ত তিন গুণ মূল্য পরিশোধ করার কথা।

এমন সিদ্ধান্ত আসার পরেই ফুঁসে উঠে রাজশাহীর মানুষ। প্রতিবাদ জানিয়ে রাস্তায় নামেন বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ। ওয়াসার বিরুদ্ধে নগরের প্রতিটি ওয়ার্ডে গত কয়েক সপ্তাহ ধরে গণসংযোগ করে আসছে মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টি। গত ১৭ ফেব্রুয়ারি রাজশাহী জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছেন তারা। আগামী ১ মার্চ বিকালে নগরবাসীকে নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করারও কথা রয়েছে তাদের।