।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) নিজস্ব কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে কেউ নির্বাচনি দায়িত্ব পালনকালে অনিয়মের সঙ্গে জড়িত হওয়ার প্রমাণ মিললে চাকুরিচ্যুত করা হবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনের (ইসি) অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ।

সোমবার (৭ ফেব্রুয়ারি) সপ্তম ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

ইসির অতিরিক্ত সচিব বলেন, ‘অনিয়মে জড়িত ইসির কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে স্ট্রং ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। অনেকে সাময়িক বরখাস্ত অবস্থায় আছেন। অনেকের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা হয়েছে। এগুলোর তদন্ত চলছে। অভিযোগ প্রমাণিত হলে চাকরি চলে যাওয়ার মতো স্থায়ীভাবে বরখাস্ত করা হবে।’

নির্বাচন কেমন হলো জানতে চাইলে অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ বলেন, ‘সোমবার ১৩৬টি ইউপিতে ভোট হয়েছে। ব্যালট পেপারে বিকাল সাড়ে ৫টার তথ্য অনুযায়ী, ভোট পড়েছে ৬৫ শতাংশের মতো। আর ইভিএমে পড়েছে ৬১ দশমিক ৫৩ শতাংশ। গণনা শেষ হলে প্রকৃত চিত্র পাওয়া যাবে।’

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, দু’জন ব্যক্তি নির্বাচনি সংহিসতায় মারা গেছেন। তারা ভোটকেন্দ্রের বাইরে স্থানীয় গোষ্ঠীর মধ্যে মারামারিতে নিহত হয়েছেন। ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া নেবে স্থানীয় প্রশাসন।’

তিনি আরও বলেন, ‘ওভার অল নির্বাচন ভালো হয়েছে। স্থানীয় পর্যায়ে ভোটাররা ভোটকেন্দ্রমুখী হয়েছে। উৎসব মুখর পরিবেশে ভোট হয়েছে।’

এক প্রশ্নের জবাবে অশোক দেবনাথ বলেন, ‘নির্বাচন কমিশন জীবনহানী আশা করে না। কিন্তু এরপরও অনাকাঙ্ক্ষিত কিছু ঘটনা ঘটে গেছে। এক্ষেত্রে কমিশনের ব্যর্থতা নেই। কারণ, সহিংস ঘটনাগুলো স্থানীয়ভাবে সংঘটিত হয়। সরাসরি কমিশনের কোনও দায় নেই। এটা স্থানীয় প্রশাসন দেখবে। আমরা স্থানীয় প্রশাসনের চাহিদা মোতাবেক অতিরিক্ত আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী মোতায়েন করে থাকি।’