।। শোবিজ প্রতিবেদন ।।

নায়করাজ রাজ্জাক। বাংলাদেশে তাঁর পরিচিতি এই একটাই। দশকের পর দশক ধরে তিনি নানা চরিত্রে বাংলাদেশের, বলতে গেলে মূখ্যত ঢাকাই চলচ্চিত্রের অংশ হয়ে ছিলেন। দেশের অন্যতম শ্রেষ্ঠ এই অভিনেতার প্রয়াণ হলেও রেখে গেছেন অসংখ্য স্মৃতি। সেসবের মধ্যে হালে জনপ্রিয় হয়ে ওঠা ‘আইটেম সং’ও রয়েছে।

হ্যাঁ, ঠিকই বলছি। নায়ক হিসেবে নায়করাজের কেরিয়ার যখন তুঙ্গে তখনই তিনি অংশ নিয়েছিলেন ঢাকাই সিনেমার এক আইটেম সঙে। ছবির নাম ‘মাসুদ রানা’। বাংলাদেশের স্পাই থ্রিলারের জনক কাজী আনোয়ার হোসেন নিজেই তার সৃষ্ট চরিত্রের চলচ্চিত্রায়নের চিত্রনাট্য লিখেছিলেন।

সময়টা ১৯৭৪। বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুদ পারভেজ ওরফে সোহেল রানা বানিয়েছিলেন ‘মাসুদ রানা’ নামের সিনেমাটি। সেখানে নাম ভূমিকায় ছিলেন সোহেল রানা নিজেই। সিনেমাটির যে গানটি মানুষের মুখে মুখে ফিরেছিলো সেই ‘মনেরও রঙে রাঙাবো’ গানটির পুরুষ সংস্করণটিকে ব্যবহার করা হয় আইটেম সং হিসেবে। আর সেখানেই অতিথি শিল্পী হিসেবে হাজির হন রাজ্জাক।

আজাদ রহমানের কথা ও সুরে গানটিতে কণ্ঠ দেন খুরশিদ আলম। এই গানের নারী সংস্করণে কণ্ঠ দেন সেলিনা আজাদ। ছবিটি প্রযোজনা ও পরিচালনা করেন সোহেল রানা নিজেই।

সদ্য প্রয়াত কাজী আনোয়ার হোসেন এই চলচ্চিত্রের জন্য ১৯৭৪ সালে শ্রেষ্ঠ চিত্রনাট্যকার ও সংলাপ রচয়িতা হিসেবে বাচসাস পুরস্কার লাভ করেন।