।। শোবিজ প্রতিবেদক ।।

অবশেষে হালের বিনোদন দুনিয়ার অন্যতম মাধ্যম ওভার দ্য টপ বা ওটিটি প্লাটফর্মে যাত্রা শুরু করলো রাজশাহী। বাক্যটি এভাবে লিখলে খানিকটা আঞ্চলিকতার গন্ধ লাগতে পারে। কারণ, রাজশাহীর হোক আর দুনিয়ার যে প্রান্তেরই হোক ওটিটির কনটেন্ট মানেই বিশ্বজনীন। সেই হিসেবে বাংলায় যুক্ত হলো আরেকটি আন্তর্জাতিক মানের ওয়েব সিরিজের নাম- ‘শাটিকাপ’। দেশের অন্যতম শীর্ষ ওটিটি প্লাটফর্ম চরকি সোমবার রাতে প্রকাশ করেছে প্রতীক্ষিত এই নার্কো থ্রিলার ঘরানার ওয়েব সিরিজের প্রথম ঝলক। দুর্দান্ত এই গল্পের পটভূমিই শুধু রাজশাহী নয়, এর নির্মাতা-কলাকুশলী এখানকারই এবং সিরিজের প্রথম সিজনের প্রায় পুরোটাই দৃশ্যায়ন করা হয়েছে রাজশাহীতে।

‘শাটিকাপ’ রাজশাহীসহ উত্তরবঙ্গের বেশ কয়েকটি এলাকায় প্রচলিত আঞ্চলিক শব্দ। এর ভাবার্থ অনেকটা- কোনোকিছু নিয়ে ঘাপটি মেরে বসে থাকা। নির্মাতা এই শব্দটিকেই বেছে নিয়েছেন প্রথমবারের মতো রাজশাহীর সীমান্ত এলাকা নিয়ে নির্মিত কোনো ওয়েবসিরিজের নামকরণের জন্য। মাদক আর সীমান্ত অপরাধের এক টানটান গল্প নিয়ে ‘শাটিকাপ’ দ্রুতই দেখা যাবে চরকিতে।

নার্কোথ্রিলার ঘরানার এই সিরিজের প্রথম সিজন শুরু হয় রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনে রাতের বেলা মাদকের হাতবদল আর মাদক নিরোধী দফতরের কর্মকর্তাদের সঙ্গে মাদক কারবারীদের চোর-পুলিশ খেলা দিয়ে। কাহিনি যত গড়াতে থাকে ততোই জুড়তে থাকে নতুন নতুন চরিত্র আর খুলতে থাকে অপরাধ জগতের এক অজানা সাম্রাজ্যের দুয়ার। সীমান্তব্যবসার গডফাদার, মাদকব্যবসায়ী, চোরাকারবারী, দুর্ধর্ষ অপরাধী, সাদাকালোয় মেশানো আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, খবরের সন্ধানে ছুটতে থাকা সংবাদকর্মী সবাই মিলে ছুটতে থাকেন এক অজানা কাহিনির পেছনে। সামনে থেকে যা দেখা যায়, সেটাই কি আদতে শেষ কথা? নাকি অপরাধের এই সাম্রাজ্যের পেছনে লুকিয়ে আছে একদম অজানা কোনো কুশীলব? প্রথম সিজনে আটটি এপিসোডে খোঁজা হবে এই গল্প- সীমান্তবর্তী নদী থেকে বিস্তৃত চরে, আধুনিক নগরের সড়ক থেকে বস্তির অলিগলিতে, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ইন্টারোগেশন চেম্বার থেকে অপরাধীদের ডেরায়।

ফুটপ্রিন্ট ফিল্ম প্রোডাকশনের ব্যানারে একঝাঁক তরুণ অভিনয় শিল্পীকে নিয়ে প্রায় দুবছর ধরে কর্মশালা, মহড়া আর দৃশ্যায়ন চলে শাটিকাপের। তাওকীর ইসলামের নির্মাণে উল্লেখযোগ্য চরিত্রে রয়েছেন ওমর মাসুম, অমিত রুদ্র, আহসাবুল ইয়ামিন রিয়াদ, নাজমুস সাকিব, শাহ আসিফ আহমেদ, সাজিয়া খানম কুমু, মাহিনুর রহমান খান, রমিত ওয়াসিকুল, আকাশ বিন ওসামা, কাজী সুস্মিন আফসানা ও গালিব সর্দার। ওয়েব সিরিজের সংগীত পরিচালনা করেছেন কলকাতার নবারুন বোস।

নির্মাতা তাওকীর ইসলাম জানান, রাজশাহী থেকে আগামীতে আরও কাজ হবে বলে তারা আশাবাদী।