grand river view

।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

খুলনা-সাতক্ষীরা মহাসড়কের ডুমুরিয়া উপজেলার জিলেরডাঙ্গা এলাকায় বালুবাহী ট্রাকের ধাক্কায় সিএনজিচালিত অটোরিকশা ডোবায় পড়ে চারজন নিহত হয়েছেন। শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) বেলা ১টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

এরপর টানা চার ঘণ্টার চেষ্টায় ডোবা থেকে বিকাল ৫টার দিকে নিহতদের লাশ উদ্ধার করেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। বালুবাহী ট্রাকের চালক রাকিব শেখকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহতরা হলেন- মধ্যে ডুমুরিয়া উপজেলার শরাফপুরের জাকারিয়া সরদারের ছেলে সিএনজিচালক ইলিয়াস সরদার (৪৫) ও রুদাঘরা গ্রামের মহিউদ্দিনের মেয়ে রেশমা খাতুন (৩২)। বাকি দুইজনের একজন নারী অন্যজন পুরুষ জানা গেলেও তাদের নাম-পরিচয় এখন পাওয়া যায়নি।

ডুমুরিয়া থানার ওসি মো. ওবায়দুর রহমান বলেন, ‘বালুভর্তি ট্রাক (সাতক্ষীরা-ই ১১-০৩৯৪) এবং যাত্রীবাহী সিএনজি উভয় যানই খুলনামুখী ছিল। ট্রাকটি পেছন থেকে সজোরে সিএনজিটিকে ধাক্কা দেয়। এতে সিএনজিটি যাত্রীসহ রাস্তার পাশের ডোবার মধ্যে পড়ে। সিএনজির ওপর বালুভর্তি ট্রাকটিও পড়ে। ফলে সিএনজিটি পানির নিচে দেবে যায়। এতে সিএনজি থেকে কেউ বের হতে পারেননি। ডুমুরিয়া ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরিরা চার ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে চার জনের লাশ উদ্ধার করে।’

ওসি আরও বলেন, ‘ট্রাকচালক রাকিব শেখকে আটক করা হয়েছে। আটক রাজিব খুলনার দিঘলিয়া উপজেলার মহসীন শেখের ছেলে।’

জানা গেছে, এ দুর্ঘটনায় পর উদ্ধার কাজের জন্য খুলনা-সাতক্ষীরা মহাসড়কে চার ঘণ্টা যানবাহন চলাচল বন্ধ ছিল। এর ফলে রাস্তার দুই পাশে যানবাহনের দীর্ঘ জটলার সৃষ্টি হয়। বিকাল ৫টায় উদ্ধার কাজ শেষে এ মহাসড়কে গাড়ি চলাচল স্বাভাবিক হয়।