।। নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী ।।

আধুনিক রাষ্ট্রে ভূমিকে কেন্দ্র করে আদিবাসীদের প্রতি যতো জুলুম, উচ্ছেদ, জবরদখল, কেনাবেচা, হত্যা, নির্যাতন, মিথ্যে মামলা, অপরাধীকরণ ইত্যাদি ঘটনা ঘটেই চলেছে। এখন ভূমি সমস্যাই আদিবাসীদের অন্যতম প্রধান সমস্যা। তবে খুব শিগগির এ সমস্যার সমাধান হবে বলে জানিয়েছেন আদিবাসী বিষয়ক সংসদীয় ককাসের আহ্বায়ক ও জাতীয় আদিবাসী পরিষদের উপদেষ্টা ফজলে হোসেন বাদশা এমপি।

বুধবার (৮ সেপ্টম্বর) সকালে নওগাঁ সার্কিট হাউসে আদিবাসী নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা জানান। জাতীয় আদিবাসী পরিষদের কেন্দ্রীয় ও নওগাঁ জেলা কমিটির যৌথ উদ্যোগে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বাদশা বলেন, ‘পার্বত্য চট্টগ্রাম ভূমি কমিশনকে অকার্যকর অবস্থায় রাখা হয়েছে এবং সমতলের আদিবাসীদের জন্য পৃথক ভূমি কমিশন গঠন করার কথা থাকলেও এখনো গঠন করা হয়নি। মানবাধিকার কমিশন একটি সিদ্ধান্ত নিয়ে সরকারের কাছে আদিবাসীদের ভূমি রক্ষা রিপোর্ট জমা দেবে এবং আমরা ও সেটা পার্লামেন্টে নিয়ে যাব। পার্লামেন্ট বসলে সেখানে আদিবাসী অধিকার আইনের প্রস্তাবনা উত্থাপন করা হবে। আশা করি অতি দ্রুত সমতলের আদিবাসীদের ভূমি সংক্রান্ত জটিলতার নিরসন হবে।

ওয়ার্কার্স পার্টির প্রধানতম এ নেতা আদিবাসী নেতৃবৃন্দের উদ্দেশে বলেন, আমাদের মনে রাখতে হবে, আদিবাসীদের ভূমি থেকে উচ্ছেদ করার পেছনে রাজনৈতিক উদ্দেশ্য রয়েছে। আদিবাসীদের প্রতি যে ঐতিহাসিক অবিচার, বঞ্চনা ও বৈষম্যের বিলোপ হওয়া দরকার। সেইসঙ্গে পাহাড়-সমতলের আদিবাসীদের নাগরিক অধিকার, মানবাধিকার, ভূমি অধিকার রক্ষা করতে আপনাদের ধারাবাহিক লড়াই-সংগ্রাম চালিয়ে যেতে হবে।’

জাতীয় আদিবাসী পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সবিন চন্দ্র মুন্ডার সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন- জাতীয় আদিবাসী পরিষদের উপদেষ্টা ও রাজশাহী মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক দেবাশিষ প্রামানিক দেবু, আদিবাসী পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আমীন কুজুর, ওয়ার্কার্স পার্টির নওগাঁ জেলার সাধারণ সম্পাদক শহিদউদ্দীন স্বপন, আদিবাসী পরিষদের নওগাঁ জেলার উপদেষ্টা আবুল কালাম আজাদ, আদিবাসী যুব পরিষদের নেতা নরেন পাহান প্রমুখ।