grand river view

।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

তিন ঘণ্টা হেঁটে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবি জানিয়েছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) অর্থনীতি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন খান। মঙ্গলবার (২৪ আগস্ট) সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের জোহা চত্বর থেকে তিনি পদযাত্রা শুরু করে। পরে রাজশাহী মহানগরীর বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ঘুরে দুপুর পৌনে দুইটার দিকে ফের একইস্থানে এসে পদযাত্রা শেষ হয়।  

ফরিদ উদ্দিন খান বলেন, করোনার প্রথম দিকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান দ্রুত বন্ধ করার দাবি উঠেছিল। সেটিই প্রয়োজন ছিল। কিন্তু এখন বাংলাদেশসহ সর্বমোট ১২টি দেশ ছাড়া সবদেশেই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা। পৃথিবীর অনেক দেশ থেকে আমাদের দেশে করোনা পরিস্থিতি ভালো। তাছাড়া দীর্ঘদিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকা শিক্ষা থেকে ঝরে পড়ার হার বাড়ছে, শিক্ষার্থীরা মানসিক সমস্যায় ভুগছে। এখন আর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ রাখার যৌক্তিকতা নেই। তাই দ্রুত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবিতে আমার এই মৌন পদযাত্রা।

এর আগে গত রোববার ফরিদ উদ্দিন খান নিজের ফেসবুক টাইমলাইনে জানান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার দাবিতে নীরব পদযাত্রা করবেন। পদযাত্রা কর্মসূচিতে তিনি নগরীর বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সামনে ১০ মিনিট করে অবস্থান করবেন।

পূর্বঘোষণা অনুসারে মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ শামসুজ্জোহা চত্বর থেকে সহযোগী অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন খান নীরব পদযাত্রা শুরু করেন। এ সময় তার সঙ্গে পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী মো. মোমিন অংশ নেন। তারা হেঁটে হেঁটে নগরের কাজলা, তালাইমারি ও সাহেববাজার জিরোপয়েন্ট হয়ে রাজশাহী কলেজ অবস্থান করেন। পরবর্তীতে নিউ গভর্নমেন্ট ডিগ্রি কলেজ ও রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজের সামনে কিছুক্ষণ করে অবস্থান করেন।

পরে বর্ণালীর মোড়, ভদ্রা মোড় হয়ে রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) সামনে এসে কিছুক্ষণ অবস্থান করেন। সেখান থেকে বেলা পৌনে দুইটার দিকে পুনরায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ শামসুজ্জোহা চত্বরে এসে তাদের কর্মসূচি শেষ হয়।

প্রায় সাড়ে তিন ঘণ্টার এই নীরব পদযাত্রায় তারা প্রায় ১৫ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করেন।