grand river view

।। নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী ।।

বাংলার অন্যতম শক্তিমান কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হককে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেয়া হয়েছে। শনিবার (২১ আগস্ট) সকালে রাজশাহী থেকে তাকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে ঢাকায় নেয়া হয়।

এর আগে নগরীর চৌদ্দপাই এলাকায় বিশ্ববিদ্যালয় হাউজিং সোসাইটির (বিহাস) বাসা থেকে একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে হাসান আজিজুল হককে রাজশাহী বিমানবন্দরে নেওয়া হয়। এসময় অ্যাম্বুলেন্সে লেখকের পুত্র ইমতিয়াজ হাসান মৌলি র সঙ্গে অ্যাম্বুলেন্সে পাশে ছিলেন ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা ও অধ্যাপক শাহ আজম শান্তনুসহ তার একাধিক ঘনিষ্ঠজন।

বিমানবন্দরে নেয়ার সময় বিহাসে অসুস্থ্য কথাসাহিত্যিকের পাশে দেখা যায় ব্রিটেনে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত অধ্যাপক ড. সাইদুর রহমান খান, অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক ড. সনৎকুমার সাহা, কবি আরিফুল হক কুমার, অধ্যাপক ড. সুব্রত মজুমদার, অধ্যাপক ড. মোখলেসুর রহমান, অধ্যাপক ড. এম রফিকুল আহসান, অধ্যাপক ড. বিধানচন্দ্র দাস, তাঁর ঘনিষ্ঠ বন্ধু প্রফেসর ড. মহেন্দ্রনাথ অধিকারী ও সাংবাদিকতার শিক্ষক সাজ্জাদ বকুলকে।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে একটানা ৩১ বছর শিক্ষকতার পর ২০০৪ সালে অবসর নেন হাসান আজিজুল হক। এরপর বিহাসে নিজের ‘উজান’ নামের বাসায় থাকেন। গত ১৬ আগস্ট সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়ে ছেলে ইমতিয়াজ হাসান জানান, গত এক মাস ধরেই তাঁর বাবা ‘ভীষণ’ অসুস্থ। তিনি বাথরুমে পরে যাবার পর থেকে এ অবস্থা। এরপর তাঁর অসুস্থতার খবর জানাজানি হয়। করোনার ঝুঁকির কথা চিন্তা করে হাসান আজিজুল হককে হাসপাতালে নেওয়া হচ্ছিল না। ছয়জন চিকিৎসকের সমন্বয়ে বাড়িতেই তাঁকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছিল।