grand river view

।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ফুটবল উদ্ধার করতে গিয়ে পদ্মা নদীতে ডুবে নিখোঁজ হওয়ার ছয় ঘণ্টা পর দুই কলেজছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) সন্ধ্যা ৭টায় দৌলতপুর উপজেলার ফিলিপনগর আবেদের ঘাট এলাকা থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয় বলে নিশ্চিত করেন ভেড়ামারা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন কর্মকর্তা প্রবীর কুমার দেবনাথ।

 এর আগে বেলা ১টার দিকে উপজেলার ফিলিপনগর ইউনিয়নের আবেদের ঘাট সংলগ্ন পদ্মা নদীতে পড়ে যাওয়া ফুটবল উদ্ধার করতে গিয়ে পানিতে ডুবে নিখোঁজ হন এই দুই কলেজছাত্র।

এরা হলেন- ফিলিপনগর কবিরাজপাড়া গ্রামের বাসিন্দা বাবুল কবিরাজের ছেলে ফিলিপনগর মরিচা (পিএম) ডিগ্রি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র ইউসুফ আলী (১৯) ও একই কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র কুমির উদ্দিনের ছেলে সামিরুল ইসলাম সম্রাট (১৮)।

স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ইউসুফ ও সামিরুল বেশ কয়েকজন বন্ধুর সঙ্গে পদ্মার চরে ফুটবল খেলছিল। এক সময় ফুটবল নদীতে গিয়ে পড়ে গেলে ইউসুফ ও সামিরুল বলটি উদ্ধারে নদীতে নামলে তীব্র স্রোতে তারা তলিয়ে যায়। খবর পেয়ে এলাকার লোকজন নৌকা নিয়ে তাদের উদ্ধারের চেষ্টা চালালেও দুজনের কোনো সন্ধান মেলেনি।

কুষ্টিয়া ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের সহকারী পরিচালক রতন নাথ বলেন, কুষ্টিয়া ফায়ার সার্ভিসে ডুবুরি দল না থাকায় খুলনা থেকে ডুবুরি দল এসে বিকেলে উদ্ধার অভিযান শুরু করে। তারা প্রায় আড়াই ঘণ্টার অভিযান শেষে সন্ধ্যা ৭টায় নিখোঁজ দুই জনের মরদেহ উদ্ধার করে।