।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

গাইবান্ধার পলাশবাড়ী সদর উপজেলার উত্তর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় কাভার্ডভ্যানের ধাক্কায় সিএনজিচালিত অটোরিকশার চার যাত্রী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন একটি শিশুসহ (৭) দু’জন যাত্রী।

শুক্রবার (৩০ জুলাই) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে রংপুর-ঢাকা মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। 

নিহতরা হলেন- অটোরিকশাচালক গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার  ফুলবাড়ী গ্রামের  সবুজ মিয়া (৩৫), ভোলা জেলার নিয়ামুলক হকের ছেলে জিন্টু মিয়া (৩০), রংপুর মর্ডান মোড়ের বাবুর স্ত্রী শাম্মী আকতার (৩৫) ও রংপুরের হারাগাছ বাংলা বাজারের শাহ জালাল (৩৫)।  আহত দু’জনকে নাম জানা যায়নি। 

স্থানীয়রা জানান, বিকেলে যাত্রীবাহী একটি অটোরিকশা পলাশবাড়ীর দিকে যাচ্ছিল। পথে ওই বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন প্রশিকা অফিসের সামনে রংপুরগামী পণ্যবাহী একটি কাভার্ডভ্যান অটোরিকশাটিকে ধাক্কা দিয়ে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই অটোরিকশার চার যাত্রী নিহত হন।

গাইবান্ধা সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) উদয় কুমার সাহা বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে হতাহতদের উদ্ধার করেছে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা। আহত দু’জনকে পলাশবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। পরে সেখানে অবস্থার অবনতি হলে একজনকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ (রমেক) হাসপাতালে স্থানান্তর করেছেন দায়িত্বরত চিকিৎসক। নিহতদের মরদেহ তাদের স্বজনদের কাছে হস্তান্তরের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন। এছাড়া ঘাতক কাভার্ডভ্যান জব্দসহ চালককে আটকের চেষ্টা চলছে।