grand river view

।। জেষ্ঠ্য প্রতিবেদক, রাজশাহী ।।

শিয়রে সন্তান। বুকের মধ্যে নিথর মায়ের মুখ আগলে রেখেছেন পরম মমতায়। কখনোবা খাচ্ছেন চুমু। অথচ তারও আধাঘণ্টা আগে চিকিৎসা শুরু না হতেই তানোরের কামরুন্নাহার সন্তানের স্নেহ, ভালোবাসা ও মমতা সব কিছু তুচ্ছ করে বিদায় নিয়েছেন ইহলোক ছেড়ে। এর কিছুক্ষণ পর রোববার দুপুরে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পৌছে মৃত্যুবরণ করেন বাঘার আরেক মধ্যবয়স্ক নারী হেলেনা।

হেলেনার জামাই শিমুল জানান, শ্বাসকষ্ট শুরু হলে শাশুড়িকে একটি বেসরকারি হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখান অক্সিজেন না থাকায় আনা হয় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। গেটেই তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

সরকারি হিসেবের বাইরে

হাসপাতালের জরুরি বিভাগের সামনে কথা হয় ফটোসাংবাদিক শহিদুল ইসলাম দুখুর সঙ্গে। তিনি জানান, জুন থেকে চলতি মাস পর্যন্ত অন্তত ৩০ জনের হাসপাতালের জরুরি বিভাগের সামনেই এমন মৃত্যু হয়েছে। করোনা পরীক্ষা কিংবা চিকিৎসা না হওয়ায় এসব মৃত্যুবরণকারীরা থাকছেন সরকারি হিসেবের বাইরে।

বেশিরভাগ পুরুষ গ্রামের বাসিন্দা

হাসপাতালের তথ্যে, চলতি মাসে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনায় মৃত্যু রেকর্ড ছাড়িয়েছে। বেশি বয়সী, বিশেষ করে ষাটোর্ধ্ব ব্যক্তিদের মৃত্যু বেশি। মৃতদের মধ্যে কুড়ি বছরের কম বয়সীও রয়েছেন বেশ কজন। অপেক্ষাকৃত কম বয়সীদের মৃত্যু বাড়ার এই প্রবণতা জুলাই মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে শুরু হয়েছে।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ কলেজ হাসপাতালের হিসেবে পর্যালোচনায় দেখা যায়, ১৩ জুন থেকে ২৮ জুলাই পর্যন্ত (জুন ১৮, জুলাই ২ ও ৯ ব্যতীত) এই হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেছেন ৬৯০ জন। এর মধ্যে পুরুষ মারা গেছেন ৪৪১ জন। নারী মারা গেছেন ২৪৯ জন। পুরুষের মৃত্যুহার শতকরা হিসেবে ৬৩ দশমিক ৯১ শতাংশ। নারীদের মৃত্যুর হার ৩৬ দশমিক ০৮ শতাংশ।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজের দেয়া তথ্য অনুযায়ী উপরের সময়কালে উত্তরকালের পর্যালোচনায় ৬৯০ জনের বয়সভিত্তিক মৃত্যু: ৩১ থেকে ৪০ বছর বয়সী ৭৯জন। ১১ দশমিক ৪৪ শতাংশ। ৪১ থেকে ৫০ বছর বয়সী ৯৫জন। ১৩ দশমিক ৭৬ শতাংশ। ৫১ থেকে ৬০ বছর বয়সী ১৮৫জন। ২৬ দশমিক ৮১ শতাংশ। ৬০ বছরের ঊর্ধ্বে ২৮৭ জন। ৪১ দশমিক ৫৯ শতাংশ।

বেড়েছে কম বয়সী মৃত্যু

জুন মাসে ১১ থেকে ২০ বছর বসয়ী কেউ মারা না গেলেও জুলাই মাসের শেষ দশ দিনে মারা গেছে ৪ জন। শুধু জুলাই মাসে ২১ থেকে ৩০ বছর বয়সীদের মৃত্যু বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২০ জনে।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজের দেয়া তথ্য অনুযায়ী উপরের সময়কালে উত্তরকালের পর্যালোচনায় ৬৯০ জনের বয়সভিত্তিক মৃত্যু: শূন্য থেকে ১০ বছর বয়সী কেউ মারা যায়নি। ১১ থেকে ২০ বছর বয়সী ৪ জন। শূন্য দশমিক ৫৭ শতাংশ। ২১ থেকে ৩০ বছর বয়সী ২৮ জন। ৪ দশমিক ০৫ শতাংশ।

কিছুতেই কমছে না মৃত্যুর হার

হাসপাতাল এর তথ্যমতে, ২৮ জুলাই পর্যন্ত রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেছেন ৪৯২ জন। এরমধ্যে ১৬৮ জন পজিটিভ এবং উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন ৩২৪ জন। চলতি মাসে রাজশাহী জেলার বাসিন্দা মারা গেছে ২৩০ জন। এরমধ্যে ৮০ জন পজিটিভ এবং উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন ১৫০ জন।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী জানিয়েছেন, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে যারা মারা যাচ্ছেন, তাদের মধ্যে ষাটোর্ধ বয়সের মানুষ বেশি। মৃত্যুবরণকারী বেশিরভাগ পুরুষ এবং ৭০ শতাংশই গ্রামের বাসিন্দা। অধিকাংশ ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে হাসপাতালে ভর্তির প্রথম দিনে।