grand river view

।। জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, রাজশাহী ।।

করোনা বিশেষায়িত হাসপাতাল করতে সদর হাসপাতালের সংস্কার কাজে অর্থ বরাদ্দে সম্মতি দিয়েছে মন্ত্রণালয়। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী জানান, গত মঙ্গলবার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সাথে একটি ভার্চুয়াল মিটিং-এ স্বাস্থ্য সচিব এই অর্থ বরাদ্দের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান,বিভাগীয় প্রশাসন, জেলা প্রশাসন, স্বাস্থ্য বিভাগ, মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ গত মাসে সদর হাসপাতাল পরিদর্শন করে। পরে গণপূর্ত বিভাগ সংস্কার কাজের সম্ভাব্য খরচ নিরুপণ করে। সেটি প্রতিবেদন আকারে মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়। সেটির সম্ভাব্যতা যাচাই বাছাই শেষে মন্ত্রনালয় অর্থ বরাদ্দের চুড়ান্ত প্রক্রিয়া শুরু করেছে।

শামীম ইয়াজদানী জানিয়েছেন, কেন্দ্রীয় অক্সিজেন ব্যবস্থাসহ সংস্কার কাজের জন্য আড়াই কোটি টাকা চাওয়া হয়েছিল। মন্ত্রণালয় পুরো টাকা বরাদ্দ দিবে বলে নিশ্চিত করেছে।

পরিচালক বলেন, “যেহেতু এটি জরুরিভাবে করা হচ্ছে, সে কারণে কোন প্রতিষ্ঠানগুলোর ভালোভাবে অক্সিজেন লাইন ও অক্সিজেন প্লান্ট স্থাপন করার সক্ষমতা রয়েছে সেগুলোর খোঁজ খবর নেয়া হচ্ছে।”

তিনি আরও  বলেন, “সংস্কার কাজের জন্য আলাদা প্রতিষ্ঠানের প্রয়োজন হবে। কারণ একটি প্রতিষ্ঠান প্লান্ট তৈরি করবে, অন্য আরেকটি প্রতিষ্ঠান অক্সিজেন সরবরাহ করবে।”

শামীম ইয়াজদানী জানান, অর্থ ছাড় হলে কাজ শুরুর আড়াই মাসের মধ্যে সংস্কার কাজ শেষ করা সম্ভব। এরমধ্যে যদি করোনা সংক্রমণ আরও ব্যাপকতা পায়, তাহলে দু’একটা ইউনিট শিফট করার পরিকল্পনা আছে।

করোনা প্রকোপ শুরুর পর রাজশাহী সদর হাসপাতালকে করোনা বিশেষায়িত করতে তোড়জোড় শুরু হয় গেল বছরের ডিসেম্বরে। মাঝে সেই উদ্যোগ কিছুটা মন্থর হয়। চলতি বছরের এপ্রিলে আবারো শুরু হয় চিঠি চালাচালি। সম্প্রতি স্বাস্থ্য সংশ্লিষ্ট বিভাগগুলো সদর হাসপাতাল পরিদর্শন শেষে ভবন সংস্কারের এস্টিমেট পাঠায় মন্ত্রণালয়ে।

রাজশাহী জেলার সিভিল সার্জন ডা. কাইয়ুম তালুকদার বলেন, “স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বেশ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে। আশা করছি আগামী মাসে সদর হাসপাতালের সংস্কার কাজ শুরু হবে।”

প্রসঙ্গত, ১৯০২ সালে রাজশাহীতে সদর হাসপাতালে শুরু হয় স্বাস্থ্যসেবা কার্যক্রম। পরে চালু হয় মেডিসিনসহ সার্জারি সেবা। ২০০৪ সালে চিকিৎসাসেবা বন্ধ করে ডেন্টাল ইউনিটের শিক্ষা কার্যক্রম চালু করে মেডিকেল কলেজ।