।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

আসন্ন ২০২১-২২ অর্থবছরের নতুন বাজেটে এবারও সর্বোচ্চ ভর্তুকি দেয়া হচ্ছে কৃষি খাতে। বৃহস্পতিবার (৩ জুন) জাতীয় সংসদে উপস্থাপিত বাজেটে এ তথ্য জানা গেছে।

বাজেটে (২০২১-২২) কৃষি খাতে সর্বোচ্চ ৯ হাজার ৫০০ কোটি টাকা ভর্তুকি দেয়া হচ্ছে। সরকার ভর্তুকি দেয়ার ক্ষেত্রে দ্বিতীয় অবস্থানে রেখেছে বিদ্যুৎ খাতকে। এ খাতে ভর্তুকিবাবদ বরাদ্দ দিচ্ছে ৯ হাজার কোটি টাকা। প্রাকৃতিক তরল গ্যাসে (এলএনজি) সরকারের ভর্তুকি ৮ হাজার ৫০০ কোটি টাকা। রফতানি খাতে আগামী বছর ভর্তুকি বাবদ সরকার বরাদ্দ দিচ্ছে ৭ হাজার ৩৫০ কোটি টাকা। এছাড়া খাদ্যে ৬ হাজার কোটি, রেমিট্যান্সে ৪ হাজার কোটি, প্রণোদনা প্যাকেজ ঋণের সুদ পরিশোধে ২ হাজার কোটি টাকা এবং সর্বনিম্ন  ৫০০ কোটি টাকা ভর্তুকি বাবদ দিচ্ছে পাট খাতকে। এর বাইরে অন্যান্য সব খাত মিলিয়ে ১ হাজার ৬০ কোটি টাকা বরাদ্দ থাকছে ভর্তুকি ও প্রণোদনা বাবদ।

উল্লেখ্য, চলতি ২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেটে ভর্তুকিতে ৩৮ হাজার ৬৪৮ কোটি এবং প্রণোদনায় ১০ হাজার ৩৮৫ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে।

কোভিড-১৯ এর কারণে ক্ষতিগ্রস্ত অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে সরকার ২৩টি প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করেছে। এর মোট আর্থিক পরিমাণ ১ লাখ ২৪ হাজার ৫৩ কোটি টাকা। এই ২৩ প্যাকেজের আকার মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) ৪ দশমিক ৪৪ শতাংশ। এসব প্রণোদনা ঋণের সুদের হার ৯ শতাংশ। সুদ ৯ শতাংশের মধ্যে গ্রাহক দেয় ৪ থেকে সাড়ে ৪ শতাংশ, এবং বাকি সুদ সরকার পরিশোধ করছে। যা পুরোটাই ভর্তুকি। এর ফলে আগামী বছর সুদ পরিশোধে ভর্তুকি বাবদ সরকার বরাদ্দ রাখছে ২ হাজার কোটি টাকা।