।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

মিয়ানমারের ক্ষমতাচ্যুত নেত্রী অং সান সু চি ভালো আছেন এবং শিগগিরই তাকে দেখা যাবে। এমন মন্তব্য করেছেন দেশটির সেনাবাহিনী ও জান্তা সরকারের প্রধান অং হ্লাইং। ২০ মে হংকংভিত্তিক চীনা সম্প্রচারমাধ্যম ফিনিক্স টেলিভিশনকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এমন মন্তব্য করেন তিনি। ২০২১ সালের ১ ফেব্রুয়ারি সামরিক অভ্যুত্থানের পর এটিই তার প্রথম কোনও সাক্ষাৎকার।

মিন অং হ্লাইং বলেন, কয়েক দিনের মধ্যেই সু চি আদালতে হাজির হবেন। ফিনিক্স টেলিভিশনকে দেয়া মিয়ানমারের জান্তা প্রধানের পুরো সাক্ষাৎকারটি এখনও প্রচার করা হয়নি। তবে বার্মিজ ভাষায় দেয়া তার সাক্ষাৎকারটি শনিবার চীনা ভাষায় অনুবাদ করে আংশিক প্রচার করা হয়েছে।

সাক্ষাৎকারে মিন অং হ্লাইং বলেন, ‘সু চি শারীরিকভাবে সুস্থ আছেন। তিনি বাড়িতে আছেন এবং কয়েক দিনের মধ্যে আদালতে হাজির হবেন।’

১ ফেব্রুয়ারির সামরিক অভ্যুত্থানের পর থেকেই গৃহবন্দি অবস্থায় রয়েছেন সু চি। এরইমধ্যে তার বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ আনা হয়েছে। এর মধ্যে সবচেয়ে গুরুতর হচ্ছে ব্রিটিশ আমলের অফিসিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্টে দায়ের করা অভিযোগ। জানা গেছে, ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার পর আগামী সোমবার আদালতে প্রথমবারের মতো আদালতে হাজির হবেন সু চি।

এদিকে সু চি-র দলের নিবন্ধন বাতিল করে দলটিকে বিলুপ্তির উদ্যোগ নিয়েছে জান্তা সরকার। সংবাদমাধ্যম মিয়ানমার নাউ দেশটির একজন নির্বাচন কমিশনারকে উদ্ধৃত করে এ খবর জানিয়েছে। খবরে বলা হয়েছে, রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে এক বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এনএলডিসহ বেশ কয়েকটি দল জান্তা সরকারের প্রতিনিধিদের সঙ্গে ওই বৈঠক বয়কট করে।

জান্তার নিয়োগকৃত কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশনের চেয়ারম্যান থেইন সোয়ে বলেন, নভেম্বরের নির্বাচনে এনএলডির নির্বাচনি জালিয়াতি ছিল বেআইনি। তাই দলটির নিবন্ধন বাতিল করতে হবে। নভেম্বরের নির্বাচনে জালিয়াতিতে যারা জড়িত ছিলেন তাদের বিশ্বাসঘাতক হিসেবে বিবেচনা করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এই বিষয়ে জান্তা সরকার এবং বিরোধী রাজনীতিকদের ছায়া সরকারের মুখপাত্রের কোনও মন্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে সেনা সমর্থিত ইউনিয়ন সলিডারিটি অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট পার্টি জানায়, দলগুলোর সঙ্গে বৈঠকে তাদের প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকটি চলমান থাকায় নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্ত সম্পর্কে তারা এখনও অবগত নয়।