।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

রাজশাহী মহানগরের একটি বন্ধ দোকানঘর থেকে এক যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তাঁর নাম মো. পলাশ (২৫)। তাঁর বাবার নাম মৃত ওয়াসিম। নগরীর বোয়ালিয়া থানার জিন্নানগর মহল্লায় পলাশের বাড়ি।

সোমবার (০৩ মে) দুপুরে দোকানঘরের ভেতর থেকে দুর্গন্ধ পেয়ে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেন। পরে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে। নগরীর বোয়ালিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আবদুল লতিফ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, পলাশ মানসিক ভারসাম্যহীন ছিলেন। সে কারণে তাঁর মা ও ভাই-বোন তাঁর সঙ্গে বাড়িতে থাকতে পারতেন না। পলাশ বাড়িতে একাই থাকতেন। আর তাঁর মা ও ভাই-বোনেরা বাসা ভাড়া নিয়ে অন্য এলাকায় থাকতেন। পলাশের বাড়ির পাশেই তাঁদের একটি পরিত্যাক্ত দোকানঘর আছে। সোমবার দুপুরে সেই দোকানঘরটি থেকে দুর্গন্ধ বেরিয়ে আসতে থাকে।

এ সময় এলাকার লোকজন পুলিশে খবর দেন। পরে দোকানের সাটার ভেঙ্গে পলাশের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়। মরদেহে পচন ধরে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছিল। সুরতহাল প্রস্তুতের পর বিকালে মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ রাজশাহী মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

বোয়ালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নিবারন চন্দ্র বর্মন বলেন, সর্বশেষ গত শনিবার রাতে স্থানীয়রা পলাশকে দেখেছেন। এরপর থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন। ধারণা করা হচ্ছে শনিবার রাতে পলাশ ওই দোকানে ঢুকে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। বিষয়টির তদন্ত চলছে।

এ নিয়ে থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হবে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পাওয়ার পর এ বিষয়ে পরবর্তী আইনগত পদক্ষেপ নেয়া হবে বলেও জানান ওসি নিবারন চন্দ্র বর্মন।

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.