।। নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী ।।

খোলাবাজারে সরকার নির্ধারিত মূল্যে সাধারণ ক্রেতাদের কাছে টিসিবির পণ্য বিক্রির কথা থাকলেও তা বিক্রি না করেই নিজের বাড়িতে মজুদ করেছিলেন রাজশাহীর এক পরিবেশক। ওই পরিবেশকের বাড়িতে হানা দিয়ে বিপুল পরিমাণ পণ্য জব্দ করেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের কর্তারা।

বৃহস্পতিবার (২৯ এপ্রিল) বিকাল সাড়ে ৪টায় কাজলের বাড়ি ও দোকানে অভিযান চালায় জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয়। এ সময় সেখান থেকে ১ হাজার ৫২০ লিটার সয়াবিন তেল, ৩৫০ কেজি চিনি, ৩০০ কেজি মসুর ডাল ও ২০০ কেজি ছোলা জব্দ করা হয়।

রাজশাহী নগরের রেশমপট্টি এলাকায় টিসিবির পরিবেশক মোস্তাক আহমেদ কাজলের বাড়িতে পণ্যগুলো পাওয়া গেছে। কাজলের বাড়ির সঙ্গে একটি মুদি দোকানও আছে। সেটি তার স্ত্রী চালান। এই দোকানেও পাওয়া গেছে টিসিবির পণ্য।

অভিযান পরিচালনার সময় জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক হাসান-আল-মারুফ জানান, টিসিবির পণ্য ট্রাকে নিয়ে বিক্রি না করে এখানে মজুত করে রাখা হয়েছিল। নিজেদের দোকান থেকে এসব পণ্য বেশি দামে বিক্রি করা হতো। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তারা কাজলের বাড়ি ও দোকানে অভিযান চালান।

হাসান-আল-মারুফ জানান, টিসিবির পণ্যগুলো তারা জব্দ করেছেন। তবে কাজলকে আটক করা হয়নি। শুনানির জন্য তাকে নোটিশ করা হবে। শুনানির দিন তিনি এসব মালামালের কাগজপত্র দেখাবেন। যদি না পারেন, তাহলে তার বিরুদ্ধে পরবর্তী আইনত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

জানতে চাইলে টিসিবির রাজশাহী আঞ্চলিক কার্যালয়ের প্রধান রবিউল মোর্শেদ বলেন, কাজল টিসিবির একজন পরিবেশক। তাঁর প্রতিষ্ঠানের নাম ‘আলী ট্রেডার্স’। কাজলের বাড়িতে অভিযানের খবর তিনি পেয়েছেন। তিনি কাজলকে আটকের জন্য ভোক্তা অধিকারকে বলেছেন।

তিনি আরও বলেন, ট্রাকে করে বিক্রির জন্য আটদিন আগে কাজলকে সব মালামাল দেয়া হয়েছে। খোলাবাজারে বিক্রি করলে এতদিন পর এত বেশি পণ্য তার বাড়িতে থাকার কথা না। সে অনৈতিক পন্থায় এসব পণ্য রেখেছে। তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে। গ্রেফতার করে রিমান্ডে নিতে হবে।

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.