।। বিশেষ প্রতিনিধি, রাজশাহী ।।

ঐতিহ্যবাহী রাজশাহী সিল্ক ভৌগোলিক নির্দেশক বা জিআই পণ্য হিসেবে স্বীকৃত হওয়ার বিষয়টি গত মাসেই চূড়ান্ত হয়। মেধাস্বত্ব দিবস ২৬ এপ্রিল আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশ রেশম উন্নয়ন বোর্ডের হাতে আনুষ্ঠানিকভাবে জিআই সনদ তুলে দেয়ার কথা থাকলেও চলমান করোনা পরিস্থিতির কারণে সেই সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করা হয়েছে। এখনও নতুন করে এর দিনক্ষণ নির্ধারণ করা হয়নি।

পেটেন্ট, ডিজাইন ও ট্রেডমার্ক অধিদফতরের (ডিপিডিটি) রেজিস্ট্রার আব্দুস সাত্তার জানান, শুধু রাজশাহী রেশম নয়, ঢাকার মসলিনসহ নতুন করে ৬টি পণ্যের জিআই স্বত্ব পেয়েছে বাংলাদেশ। তিনি বলেন, “লকডাউনের কারণে আমরা (২৬ এপ্রিল জিআই সনদ সংশ্লিষ্টদের হাতে) দিতে পারলাম না। আমরা চেষ্টা করবো পরবর্তীতে সুবিধামত সময়ে এটা দেয়ার। কারণ এই সনদটা সশরীরে দেয়ার নিয়ম। আর যদি একেবারে পরিস্থিতির কারণে সেটি সম্ভব না হয়, তাহলে আমরা ভার্চুয়ালিও দিতে পারি।”

আন্তর্জাতিক মেধাস্বত্ব সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল প্রোপার্টি রাইটস অর্গানাইজেশনের (ডব্লিউআইপিও) নিয়ম মেনে রাজশাহী সিল্ককে বাংলাদেশের জিআই পণ্য হিসেবে আনুষ্ঠানিক ঘোষণার বিভিন্ন ধাপ শেষ করা হয়েছে গত মার্চে। রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ রেশম উন্নয়ন বোর্ডকে এই জিআই স্বত্ব দেওয়া হচ্ছে। একই সঙ্গে রাজশাহী সিল্ক উৎপাদকদের তালিকা করা হয়েছে। পরবর্তী সময়ে চাহিদা অনুযায়ী আরও উৎপাদককে তালিকায় সংযোজন করা হবে। রেশম উন্নয়ন বোর্ডের সুপারিশ বা প্রত্যয়নের মাধ্যমে তাদের আলাদা নিবন্ধন সনদ দেওয়া হবে।