।। বিশেষ প্রতিনিধি, রাজশাহী ।।

আগের তুলনায় অনেকটাই ভালো আছেন করোনাক্রান্ত ফজলে হোসেন বাদশা। ঢাকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ও রাজশাহী-২ আসনের এই সংসদ সদস্য রোববার (১৮ এপ্রিল) টেলিফোনে উত্তরকালকে বলেন, “এখন অনেকটা ভালো বোধ করছি। চিকিৎসকরাও বলছেন, ঠিক আছি।”

জানতে চাইলে রাকসুর এই সাবেক ভিপি বলেন, “প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে চিকিৎসকরা সে অনুযায়ী চিকিৎসা দিচ্ছেন। অক্সিজেন স্যাচুরেশন ভালো আছে। অনেকেই খোঁজ খবর নিচ্ছেন। তাদের সঙ্গেও টুকটাক কথা বলছি।”

বিএসএমএমইউ’র চিকিৎসকদের একটি সূত্র জানিয়েছে, শনিবার ফজলে হোসেন বাদশার পরীক্ষা-নিরীক্ষার প্রতিবেদন নিয়ে তারা আলোচনা করেন। সে অনুযায়ী মৃদু সংক্রমণের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে তাকে। মূলত এখন তাকে অ্যান্টিভাইরাল ট্রিটমেন্ট দেয়া হচ্ছে।

গত ১৪ এপ্রিল বাদশার শরীরে করোনা শনাক্ত হয়। সেদিনই তাকে ভর্তি করা হয় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে। পরদিন ১৫ এপ্রিল মেডিকেল বোর্ড ঢাকায় পাঠানোর সিদ্ধান্ত দিলে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের ব্যবস্থাপনায় বিমানবাহিনীর এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে ঢাকায় পাঠানো হয়।

সামাজিক মাধ্যমে গুজব

হঠাৎ করেই রোববার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফজলে হোসেন বাদশার শারীরিক অবস্থা নিয়ে কিছু বিভ্রান্তিকর তথ্য ছড়ানো শুরু হয়। ছড়ানো হয় গুজব। উত্তরকাল সোশ্যাল মিডিয়া ডেস্কের পর্যবেক্ষণে দেখা যাচ্ছে, সারোয়ার জাহান বিপ্লব নামের এক ব্যক্তি তার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে রোববার সকালে প্রথম ‘ফজলে হোসেন বাদশা মারা গেছেন’ বলে একটি গুজব পোস্ট করেন। সেখান থেকেই ডালপালা মেলতে থাকে গুজবের।

সারোয়ার জাহান বিপ্লবের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে দেখা যায়, তিনি সাংবাদিক হিসেবে নিজের পরিচয় লিখে রেখেছেন প্রোফাইলে। রাজশাহীর পবায় বসবাস করেন বলেও সেখানে উল্লেখ রয়েছে।

গুজব ছড়ানোর বিষয়টিকে ‘উদ্দেশ্যমূলক’ বলে মনে করছে ফজলে হোসেন বাদশার দল ওয়ার্কার্স পার্টির স্থানীয় ইউনিট। রাজশাহী মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক দেবাশিষ প্রামাণিক দেবুর সই করা বিবৃতিতে বলা হয়, ফজলে হোসেন বাদশার ‘স্বাস্থ্য নিয়ে একটি স্বার্থান্বেষী মহল অপপ্রচার ও গুজব ছড়ানোয় লিপ্ত’। বিবৃতিতে বলা হয়, সংসদ সদস্য ঢাকায় চিকিৎসা নিচ্ছেন এবং তিনি ভালো আছেন। বিবৃতিতে আশা প্রকাশ করা হয়, শিগগির তিনি সুস্থ হয়ে ফিরে কর্মতৎপর হবেন। ‘উদ্দেশ্যমূলক’ এসব গুজব ও অপপ্রচারে কান না দেয়ার অনুরোধও জানানো হয় বিবৃতিতে।