।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

রাজশাহীর পুঠিয়ার আমবাগান থেকে আপন ইসলাম (১১) নামের ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ুয়া এক স্কুলছাত্রের লাশ উদ্ধার করেন পুলিশ। এটা পূর্বপরিকল্পিত হত্যা না আত্মহত্যা তা নিয়ে সাধারণ মানুষের মাঝে চলছে জল্পনা-কল্পনা।

বুধবার (১৪ এপ্রিল) বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে উপজেলার বড় সেনভাগ গ্রামে নিহতের ফুফুর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। নিহত আপন ইসলাম কান্দ্রা গ্রামের মৃত মইদুল ইসলামের ছেলে ও বড় সেনভাগ উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, নিহত আপন ইসলামের বাবা গত কয়েকবছর আগে মারা যায়। তার পরিবারের অসচ্ছলতার কারণে দু’বছর থেকে সে ফুফুর বাড়িতে কাজের পাশাপাশি স্কুলে পড়াশোনা করতো।

বুধবার সকাল ১০টার দিকেও তাকে কাজ করতে দেখা গেছে। আর সাড়ে ১১ টার দিকে ফুফুর বাড়ির পাশে একটি আমবাগানে তার লাশ পড়ে থাকতে দেখে থানায় খবর দেয় প্রতিবেশীরা।

তারা আরও বলেন, আপনের গলায় দড়ি লাগানো অবস্থায় পড়ে ছিল। প্রাথমিক ভাবে শরীরের কোথাও আঘাতের তেমন কোনো চিহ্ন ছিল না।

বিষয়টি নিশ্চিত করে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোহরাওয়াদী হোসেন বলেন, ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ লাশ উদ্ধার করেছে। আর ওই কিশোরের মৃত্যুর কারণ উৎঘাটনে পুলিশ এখনো প্রাথমিক তদন্ত করছে। তবে ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন আসলেই মূল বিষয়টি জানা যাবে।