।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশনে ৩১৮ রান তাড়া করে জেতা কঠিন হলেও অসম্ভব নয়। কিন্তু ওয়েলিংটনে কাল সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে জয়ের সম্ভাবনাই জাগাতে পারেনি বাংলাদেশ। তিন বিভাগেই ব্যর্থ বাংলাদেশ ১৬৪ রানের বিশাল হারে হোয়াইটওয়াশের লজ্জায় ডুবেছে। একমাত্র মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের ইনিংসটি ছাড়া বলার মতো কিছুই ছিল না ইনিংসে। এমন অসহায় আত্মসমর্পণ মেনে নিতে পারছে না বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমীরা।

দলের এমন পারফরম্যান্স নিয়ে হতাশ অধিনায়ক তামিম ইকবালও। তিনি জানালেন, এভাবে চললে ‘পৃথিবীর সেরা কোচ’ দিয়েও হবে না, খেলায় উন্নতি আসবে না। পরাজয়ের মুখই দেখতে হবে।

শুক্রবার ম্যাচ শেষে বাংলাদেশ ওয়ানডে অধিনায়ক বললেন, প্রথম ও শেষ ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের ধারেকাছেও যেতে পারিনি আমরা। নিঃসন্দেহে তারা অসাধারণ খেলেছে। আমরাও যথেষ্ট ভালো দল, কিন্তু এভাবে খেলতে থাকলে এমন পরিণতিই হবে। এমন হার মেনে নেওয়া যায় না। এভাবে চলতে থাকলে কয়েকদিন পর বাজে দলে পরিণত হব আমরা এটা বুঝতে পেরেছি যে, আমাদের হোমের চেয়ে এটা ভিন্ন একটি কন্ডিশন। তাদেরকে হারাতে হলে আমার আরও অনেক উন্নতি করা প্রয়োজন।

টাইগার ওয়ানডে অধিনায়ক যোগ করেন, আমি মনে করি, আপনি যদি দ্বিতীয় ম্যাচটা দেখেন আর প্রথম ও তৃতীয় ম্যাচটা খেয়াল করেন, তাহলে দেখবেন আমরা তাদের হারাতে পারিনি, এটা খুবই হতাশাজনক। আমি সিরিজের আগে বলেছিলাম যে আমি বেশ আশাবাদী। অবশ্যই আমাদের সুযোগ ছিল, আমরা দ্বিতীয় ম্যাচে সুযোগও পেয়েছিলাম। কিন্তু সবমিলিয়ে এটা আমাদের জন্য হতাশাজনক একটি সিরিজ। আমি মনে করি আমরা ভালো খেলতে পারিনি।

ভুল থেকে শিক্ষা নিয়েও কেন আবার একই ভুল। কোচরা তবে কি করছেন? তামিম মেনে নিলেন, একই ভুলের পুনরাবৃত্তি করেছেন তারা। আর এই ব্যর্থতায় কোচেরও দায় দেখছেন না বাংলাদেশ দলপতি।

তামিম বলেন, আপনি জানেন যে, আপনাকে শেখানোর জন্য আপনি পৃথিবীর সেরা কোচকে পেতে পারেন। তবে দিনশেষে খেলোয়াড়দের বুঝতে হবে যে, কখন কি করতে হবে, কি করা যাবে না। সমস্যাটা মূলত বিদেশের মাটিতে। দেশের বাইরে আমরা ধারাবাহিক নই।