।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

নাগরিকদের স্বাস্থ্যবিধি মানতে অবহেলা আর বিশেষজ্ঞদের উদ্বেগের মধ্যেই দেশে একদিনে শনাক্ত কোভিড-১৯ রোগী আর মৃত্যুর সংখ্যার সংখ্যায় বড় উল্লম্ফন ঘটেছে।

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানিয়েছে, সোমবার সকাল পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ২ হাজার ৮০৯ জনের মধ্যে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে; মৃত্যু হয়েছে আরও ৩০ জনের।

দৈনিক শনাক্ত রোগীর এই সংখ্যা গত সাত মাসের মধ্যে সবচেয়ে বেশি। এর আগে গতবছরের ২০ আগস্ট এর চেয়ে বেশি রোগী শনাক্তের খবর দিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদফতর। সেদিন মোট ২ হাজার ৮৬৮ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছিল।

আর সর্বশেষ এর চেয়ে বেশি মৃত্যুর খবর এসেছিল তিন মাস আগে, গত ৭ জানুয়ারি; সেদিন ৩১ জনের মৃত্যুর খবর দিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদফতর।

নতুন শনাক্ত ২ হাজার ৮০৯ জনকে নিয়ে দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের মোট সংখ্যা বেড়ে ৫ লাখ ৭৩ হাজার ৬৮৭ জন হয়েছে। আর এ ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে মোট ৮ হাজার ৭২০ জন।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের হিসাবে বাসা ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আরও ১ হাজার ৭৫৪ জন রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন গত একদিনে। তাতে এ পর্যন্ত সুস্থ রোগীর মোট সংখ্যা বেড়ে ৫ লাখ ২৪ হাজার ১৫৯ জন হয়েছে।

বাংলাদেশে গত বছর ৮ মার্চ করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়ার এক বছর পর গত ৭ মার্চ শনাক্ত রোগীর সংখ্যা সাড়ে ৫ লাখ ছাড়িয়ে যায়। এর মধ্যে গত বছরের ২ জুলাই ৪ হাজার ১৯ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়, যা একদিনের সর্বোচ্চ শনাক্ত।

প্রথম রোগী শনাক্তের ১০ দিন পর গত বছরের ১৮ মার্চ দেশে প্রথম মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করে স্বাস্থ্য অধিদফতর। এ বছর ১১ মার্চ তা সাড়ে আট হাজার ছাড়িয়ে যায়। এর মধ্যে গত বছরের ৩০ জুন একদিনেই ৬৪ জনের মৃত্যুর খবর জানানো হয়, যা একদিনের সর্বোচ্চ মৃত্যু।