।। নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী ।।

রাজশাহীর রেল ভবন ও রেল স্টেশনের বিভিন্ন স্থাপনা পরিদর্শন করেছেন রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন এমপি। এ সময় রেলমন্ত্রীর সঙ্গে বিভিন্ন স্থাপনা পরিদর্শন করেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। এরআগে শুক্রবার সকাল সোয়া ১১টায় রেল ভবনে রেলমন্ত্রীকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান সিটি মেয়র, রেলওয়ের কর্মকর্তা ও রেল শ্রমিক লীগের নেতারা।

রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন বলেন, আমরা চেষ্টা করছি, রেল ব্যবস্থাকে আরো কীভাবে আধুনিক, যুগপোযুগী এবং মানুষের জন্য সহায়ক হিসেবে গড়ে তোলা যায়। রাজশাহী থেকে আব্দুলপুর পর্যন্ত রেললাইন ডাবল করার পরিকল্পনা আমাদের আছে। ধীরে ধীরে প্রত্যেকটা লাইনকে আমরা ডাবল লাইন করছি। খুলনা থেকে দর্শনা পর্যন্ত রেললাইন ডাবল করতে ডিপিপি তৈরি কাজ চলছে। জয়দেপুর থেকে ঈশ্বরদী পর্যন্ত ডাবল লাইন করার কাজ চলছে। যমুনা নদীর উপর ডুয়েল গেজ ডাবল লাইন ব্রিজ হচ্ছে, সেই ব্রিজের ওপর দিয়ে ১০০ কিলোমিটার মিটারগেজ ও ১২০ কিলোমিটার ব্রডগেজ গতি নিয়ে চলাচল করতে পারবে। কোন ট্রেনকে অপেক্ষা করতে হবে না, একদিকে ট্রেন যাবে, আরেক দিকে আসবে। অন্যান্য লাইনও সেইভাবে করা হচ্ছে। ভবিষ্যতে রেলের গতি যাতে ১২০ কিলোমিটারে নিচে না নামতে হয়, সেই লক্ষ্যে আমরা রেলপথ সাজাচ্ছি।

রাজশাহী থেকে কলকাতা সরাসরি যাত্রীবাহী ট্রেন চালুর ব্যাপারে রেলমন্ত্রী বলেন, আপনারা যে রাজশাহী থেকে কলকাতা সরাসরি যাত্রীবাহী ট্রেন চান, সেটি শোনার জন্যই এখানে এসেছি। আমরা দাবি কথা শুনছি। সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন ইতোমধ্যে ডিও প্রদান করেছেন, সেগুলো পর্যায়ক্রমে বাস্তবায়ন করা হবে।

রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনকে জাতীয় চার নেতার অন্যতম শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামানের নামে নামকরণ করার দাবির প্রেক্ষিতে রেলমন্ত্রী বলেন, শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামান শুধু আমাদের জাতীয় নেতাই নন, তিনি আমাদের স্বাধীনতার ইতিহাসের অংশ। এ ব্যাপারে আমাকে ফরমালি প্রস্তাব দেয়া হলে, আমরা অনুমোদন দেবো।

পরিদর্শনকালে উপস্থিত ছিলেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য সামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুল, রাজশাহীর সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য আদিবা আঞ্জুম মিতা, বাংলাদেশ রেলওয়ের (পশ্চিমাঞ্চল) মহাব্যবস্থাপক মিহির কান্তি গুহ, রাজশাহী রেলওয়ে শ্রমিক লীগ ওপেন লাইন শাখার সভাপতি আকতার আলী ও সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান।