।। নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী ।।

শনিবার সন্ধ্যায় শেষ হয়েছে রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের বেঁধে দেয়া সময়সীমা। এর মধ্যে ২ মার্চ বিভাগীয় জনসভায় দেয়া বক্তব্যের জন্য ক্ষমা চাননি বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু। এ অবস্থায় তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার বিষয়ে রোববার (৭ মার্চ) বৈঠকে বসবে নগর আওয়ামী লীগ।

মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার উত্তরকালকে বলেন, “আমরা বিষয়টি নিয়ে রোববার সকালে সাংগঠনিকভাবে বসবো। সেখানে আলোচনা করে নির্ধারণ করা হবে, আমাদের পরবর্তী পদক্ষেপ।”

তবে নগর আওয়ামী লীগের একটি সূত্র জানিয়েছে, মিজানুর রহমান মিনুর বক্তব্য নিয়ে রাষ্ট্রীয়ভাবে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হতে পারে বলে তারা ধারণা করছেন।

গত ২ মার্চ রাজশাহীতে দলীয় জনসভায় মিজানুর রহমান মিনু প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে বলেন, “আজ রাত, কাল আর সকাল নাও হতে পারে। ৭৫ সাল মনে নাই?” রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ এই বক্তব্যকে ‘১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের পুনরাবৃত্তির ষড়যন্ত্র’ হিসেবে আখ্যা দিয়ে ৩ মার্চ বিক্ষোভ মিছিল করে। সেখানে নগর আওয়ামী লীগ সভাপতি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন ক্ষমা চেয়ে বক্তব্য প্রত্যাহারের জন্য ৭২ ঘণ্টা সময় বেঁধে দেন মিনুকে। অন্যথায় মামলা করার কথা জানান।

একই দিনে ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক স্থানীয় সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা এক বিবৃতিতে এই বক্তব্যের জন্য মিনুর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয়ভাবে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানান। গত দুদিন ধরে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বিএনপির প্রতি প্রশ্ন রেখে জানতে চেয়েছেন, মিনুর এই বক্তব্য দলীয় কি না।