।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

রাজশাহীতে বিএনপির বিভাগীয় মহাসমাবেশ শুরুর পরপরই হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। মঞ্চের সামনে বসা নিয়ে নেতাকর্মীদের মধ্যে হাতাহাতি হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সমাবেশস্থলে মঞ্চের সামনে নারীদের জন্য নির্ধারিত স্থানে বসা নিয়ে সিরাজগঞ্জের কর্মীদের সঙ্গে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। তবে কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি দ্রুতই নিয়ন্ত্রণে আসে। পরে আবারও সমাবেশে নেতৃবৃন্দের বক্তব্য শুরু হয়।

রাজশাহীতে বিএনপির বিভাগীয় মহাসমাবেশ শুরু হয় মঙ্গলবার (২ মার্চ) বেলা ৩টায়। মহানগরের মাদ্রাসা ময়দানের পাশে নাইস কনভেনশন সেন্টারে কোরআন তেলাওয়াতের মধ্য দিয়ে এই সমাবেশ শুরু হয়।

রাজশাহী নগর বিএনপির উদ্যোগে মহাসমাবেশে সভাপতিত্ব করছেন রাজশাহী নগর বিএনপির সভাপতি মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল। সমাবেশ পরিচালনা করেছেন রাজশাহী নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শফিকুল হক মিলন।

মহাসমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত রয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু। এছাড়া প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য দেবেন বরিশাল সিটির মেয়র প্রার্থী অ্যাডভোকেট মো. মজিবর রহমান সরোয়ার, ঢাকা উত্তরের মেয়র প্রার্থী তাবিথ আওয়াল, দক্ষিণের মেয়র প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন।

এর আগে সকাল থেকে দলীয় কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিতে শুরু করেন দলটির নেতাকর্মীরা। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সমাবেশস্থলে জনসমাগত বাড়তে থাকে। বিএনপির দাবি অনুযায়ী চারটি স্পটে অনুমতি না মেলায় নাইস গার্ডেনের মধ্যেই সমাবেশের অস্থায়ী মঞ্চ করা হয়েছে।

সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের দাবিতে সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের বীর উত্তম খেতাব বাতিলের ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে ও খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে দেশের ছয় সিটিতে বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থীদের নেতৃত্বে পূর্ব ঘোষিত এই মহাসমাবেশ অনুষ্ঠিত হচ্ছে বিভাগীয় শহর রাজশাহীতে।