।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

করোনা মহামারিকালে মূলত গণভবনে বসে কাজকর্ম চালানোর বিষয়টিকে ‘বন্দিদশার’ সঙ্গে তুলনা করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এই পরিস্থিতিতে সংসদ অধিবেশনে যোগ দেয়াকে বাইরে বের হওয়ার একটি সুযোগ হিসেবে উল্লেখ করেছেন তিনি। করোনাকালে সংসদ অধিবেশনের সময়গুলো ভালো কেটেছে মন্তব্য করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি তো বড় একটি কারাগারে বন্দি আছি। এজন্য সংসদ অধিবেশনে আমার সময় কাটে। এজন্য সবাইকে আমার আন্তরিক ধন্যবাদ।’

মঙ্গলবার (২ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় সংসদে একাদশ অধিবেশনের সমাপনী ভাষণে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা তিন কোটি ডোজ ভ্যাকসিন কিনেছি। ভারত ২০ লাখ ডোজ উপহার হিসেবে দিয়েছে। কেনা ভ্যাকসিনের ৫০ লাখ ইতোমধ্যে এসে গেছে। ইতোমধ্যে প্রত্যেক জেলা-উপজেলায় ভ্যাকসিন পৌঁছে গেছে। আগামী ৬ বা ৮ তারিখ থেকে ভ্যাকসিন দেয়া শুরু হবে। কারা চায় তারা রেজিস্ট্রেশন করবে। যারা চাইবেন তাদের করোনার টিকা দেয়া হবে। কে কে চায় তা বলতে হবে। ভ্যাকসিন যারা নেবেন তাদেরও মাস্ক পরে চলতে হবে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। যতক্ষণ পর্যন্ত বিশ্ব থেকে করোনাভাইরাস না যাবে ততদিনই এটা মেনে চলতে হবে। তাছাড়া অ্যান্টিবডি টেস্টের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। সেটাও করা হচ্ছে।’