।। নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী ।।

রাজশাহীতে ট্রাফিক পুলিশের সার্জেন্টের ওপর হামলার ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। মঙ্গলবার গভীর রাতে নগরের রাজপাড়া থানায় মামলাটি দায়ের করা হয়। মামলার বাদী আহত ট্রাফিক সার্জেন্ট বিপুল কিশোর নিজেই।

মামলার একমাত্র আসামি হামলাকারী বেলাল হোসেন (২৬)। নগরের লক্ষ্মীপুর ভাটাপাড়া এলাকায় তার বাড়ি। বাবার নাম শামসুল হক। বেলাল একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন।

সার্জেন্ট বিপুল এখন রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। সেখান থেকেই তিনি মামলার এজাহারে স্বাক্ষর করেছেন। রাজপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাজহারুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, হামলার শিকার ট্রাফিক সার্জেন্ট থানায় আসতে পারেননি। একজন পুলিশ কনস্টেবল হাসপাতালে গিয়ে মামলার এজাহারে তার স্বাক্ষর এনেছেন। বুধবার বেলা সাড়ে ৩টা পর্যন্ত আসামিকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। তাকে গ্রেফতারের জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা চলছে।

রাজশাহী নগর পুলিশের (আরএমপি) মুখপাত্র গোলাম রুহুল কুদ্দুস জানান, হামলার ঘটনার পর প্রত্যক্ষদর্শী দুইজনকে ঘটনাস্থল থেকে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। তাদের মামলার সাক্ষী করা হয়েছে। তারা পুলিশকে সহায়তা করছেন।

এর আগে মঙ্গলবার দুপুর ১টার দিকে নগরের বিলশিমলা ঐতিহ্য চত্বরে সার্জেন্ট বিপুলের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে। তার দুই হাতে জখম হয়েছে। এছাড়া শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাত পেয়েছেন তিনি। হেলমেট না পরা এবং মোটরসাইকেলের কাগজপত্র না থাকার কারণে মামলা দিতে শুরু করলে আচমকা কাঠ নিয়ে এসে তার ওপর হামলা করেন বেলাল হোসেন।

দুপুরে হাসপাতালে সার্জেন্ট বিপুলকে দেখতে গিয়ে আরএমপি কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক সাংবাদিকদের বলেন, বেলালের মোটরসাইকেলের কাগজপত্র ছিল না। সেটি জব্দ করা হয়েছে। বেলাল সার্জেন্ট বিপুলকে মেরে ফেলার চেষ্টা করেছিলেন। এ নিয়ে কঠোর আইনত ব্যবস্থা নেয়া হবে।