।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

আগামী ফেব্রুয়ারি মাসে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বহরে যুক্ত হচ্ছে সর্বাধুনিক প্রযুক্তির ড্যাশ ৮-৪০০ মডেলের সম্পূর্ণ নতুন দু’টি প্লেন। কানাডার প্রখ্যাত উড়োজাহাজ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ডি হ্যাভিল্যান্ড নির্মিত ৭৪ আসন বিশিষ্ট এই দুই উড়োজাহাজ ফেব্রুয়ারির শেষ দিকে দেশে এসে পৌঁছাবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

বিমানের সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, বাংলাদেশ ও কানাডার সরকারের মধ্যে জি-টু-জি ভিত্তিতে কেনা তিনটি ড্যাশ ৮-৪০০ উড়োজাহাজের মধ্যে প্রথমটি গত ডিসেম্বরে বিমানের বহরে যুক্ত হয়েছে। গত ২৭ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নতুন এই উড়োজাহাজের উদ্বোধন করেন। নতুন ওই উড়োজাহাজের নাম রাখা হয়েছে ধ্রুবতারা। 

চুক্তির আওতায় বাকি দুই উড়োজাহাজ ফেব্রুয়ারির শেষ দিকে দেশে এসে পৌঁছাবে। দেশের ভেতরে ও বাইরে স্বল্প দূরত্বে ফ্লাইট পরিচালনার কথা মাথায় রেখে আমদানি করা হচ্ছে নতুন এই মডেলের প্লেন। নতুন এই প্লেন যুক্ত হলে অভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইট পরিচালনার পাশাপাশি স্বল্প দূরত্বে দেশের বাইরেও গন্তব্য বাড়ানো হবে। 

কানাডার প্রখ্যাত উড়োজাহাজ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ডি হ্যাভিল্যান্ড নির্মিত, ৭৪ আসন বিশিষ্ট ড্যাশ ৮-৪০০ উড়োজাহাজটি পরিবেশবান্ধব ও অত্যাধুনিক সুযোগ-সুবিধা সমৃদ্ধ। ফলে যাত্রীরা আরামে স্বাচ্ছন্দ্যে ভ্রমণ করতে পারবেন। 

বর্তমানে বিমান বহরে মোট উড়োজাহাজের সংখ্যা ১৯টি। এরমধ্যে চারটি বোয়িং ৭৭৭-৩০০ইআর, চারটি বোয়িং ৭৮৭-৮, দু’টি বোয়িং ৭৮৭-৯, ছয়টি বোয়িং ৭৩৭ এবং তিনটি ড্যাশ ৮-৪০০ উড়োজাহাজ। নতুন দু’টি যোগ হলে প্লেনের সংখ্যা দাঁড়াবে ২১-এ। যা বাংলাদেশের কোনো এয়ারলাইন্সের সর্বোচ্চ। 

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের উপ-মহাব্যবস্থাপক তাহেরা খন্দকার বলেন, ফেব্রুয়ারির শেষ দিকে সম্পূর্ণ নতুন ড্যাশ ৮-৪০০ মডেলের প্লেন দু’টি দেশে এসে পৌঁছাবে। 

Berger Weather Coat

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.