।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

মার্কিন কংগ্রেসের অধিবেশনের মধ্যে ক্যাপিটল ভবনে হামলা চালানো রিপাবলিকান সমর্থকদের উদ্দেশে টুইট করার পর বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের অ্যাকাউন্ট সাময়িকভাবে স্থগিত রেখেছে টুইটার ও ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

বিবিসির খবরে বলা হয়, নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ তুলে ফল বাতিলের দাবি জানিয়ে আসা ট্রাম্প ক্যাপিটলে হামলাকারীদের উদ্দেশে এক পোস্টে বলেন, “আই লাভ ইউ।”

অবশ্য পরে আরেক পোস্টে তিনি সমর্থকদের ঘরে ফিরে যেতে বলেন।

টুইটার বলেছে, তাদের ‘সিভিক ইনটিগ্রিটি পলিসির’ গুরুতর লঙঘন হওয়ায় ট্রাম্পের তিনটি পোস্ট তারা সরিয়ে দিতে বলেছে।

সেগুলো সরানো না হলে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ থাকবে বলে জানানো হয়েছে টুইটারের বিবৃতিতে।

টুইটার কর্তৃপক্ষ বলেছে, ট্রাম্প যদি তাদের নিয়ম ভেঙে এ ধরনের টুইট চালিয়ে যেতে থাকেন, তাহলে তার অ্যাকাউন্ট স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দেয়া হবে।

এদিকে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ট্রাম্পকে তাদের সোশাল নেটওয়ার্কিং সাইটে ২৪ ঘণ্টার জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এই সময়ে তিনি ফেসবুক থেকে কোনো পোস্ট করতে পারবেন না। ইউটিউব ট্রাম্পের একটি ভিডিও সরিয়ে নিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জো বাইডেনের জয়ের আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতির জন্য কংগ্রেসের যৌথ অধিবেশন চলার মধ্যেই বুধবার ডনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থকরা ক্যাপিটল ভবনে ঢুকে পড়ে নজিরবিহীন পরিস্থিতির সৃষ্টি করে।

বিক্ষোভের মধ্যে কার্যত অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে ক্যাপিটল, কংগ্রেস অধিবেশন কিছু সময়ের জন্য মুলতবি করা হয়।

ট্রাম্প সমর্থকরা জানালা ভাঙচুর করে, পুলিশের সঙ্গে দাঙ্গায় জড়ায়। সংঘাতের মধ্যে নিহত হন চারজন।

হোয়াইট হাউজের কাছে সমবেত কয়েক হাজার সমর্থকের উদ্দেশে ট্রাম্প বক্তব্য দেওয়ার পর এই গোলযোগ দেখা দেয়। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ভোটের ফল প্রত্যাখ্যান করতে আইনপ্রণেতাদের চাপ দেওয়ার জন্য সমর্থকদের প্রতি আহ্বান জানানোর পাশাপাশি ‘লড়াইয়ে’ নামতে বলেন তিনি।

ক্যাপিটলে হামলা-সহিংসতার মধ্যে এক ভিডিও বার্তায় ট্রাম্প বিক্ষোভকারীদের ‘দেশপ্রেমিক’ হিসেবে বর্ণনা করে বলেন, “আমি তোমাদের ভালোবাসি।”

ইউটিউব নীতি লঙ্ঘনের কথা বলে ট্রাম্পের ওই ভিডিও সরিয়ে ফেলে। টুইটারও পরে একই পথ অনুসরণ করে এবং ট্রাম্পের অ্যাকাউন্ট সাময়িকভাবে স্থগিত করে দেয়।