।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

খেলার মাঠে যেন রাজনীতির প্রভাব না পড়ে, সেদিকে খেয়াল রাখতে সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহনমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

শনিবার প্রয়াত ফুটবলার বাদল রায়ের স্মরণ সভায় নিজের সরকারি বাসভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে দেয়া বক্তব্যে তিনি এ আহ্বান জানান।

এক সময়ে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে থাকা কাদের বলেন, “খেলাধুলাকে রাজনীতি থেকে আলাদা রাখতে হবে। একটির ওপর যেন আরেকটির নেতিবাচক প্রভাব না পড়ে। সকলের রাজনৈতিক বিশ্বাস আছে, থাকতে পারে। তাই বলে তার প্রভাব যেন মাঠের সবুজ গালিচায় না পড়ে।”

তিনি বলেন, “ক্রীড়া ফেডারেশনগুলো নিজের ভাগ্য বদলের জায়গা নয়। দেশের লাখো তরুণের বিপথগামিতা থেকে দুরে রাখতে সুকুমার বৃত্তির চর্চার চারণভূমি হচ্ছে ক্রীড়াঙ্গন। ক্রীড়াঙ্গনকে পরিশুদ্ধ রাখতে হবে। তাহলে তরুণ প্রজন্ম আস্থাশীল হবে, এতে সমাজ পরিবর্তন হবে।

“আজকে মাদক সমাজে সুনামীর মতো ছড়িয়ে পড়েছে। এই মাদকাসক্ত থেকে তরুণ সমাজকে দূরে সরিয়ে রাখতে আমাদের খেলাধুলায় আরো মনোযোগী হতে হবে। তরুণরা যদি খেলাধুলা এবং সংস্কৃতি চর্চার মধ্যে থাকে তাদের মধ্যে ভালো মানসিকতা গড়ে উঠবে।”

প্রয়াত বাদল রায়কে একজন সাহসী ও দক্ষ ফুটবলার এবং সংগঠক অভিহিত করে ওবায়দুল কাদের বলেন, “প্রায় দুই দশকের বেশি সময়ে খেলেছেন সাদা কালো জার্সিতে মোহামেডানের হয়ে। অনেকেই মনে করেন আবাহনী মানে আওয়ামী লীগ, আর মোহামেডান মানে আওয়ামী লীগবিরোধী প্রতিপক্ষ বিএনপি। এটি যে একটি ভুল ধারণা, তা বাদল রায় প্রমাণ করে গেছেন।

“বাদল রায় ছিলেন আপাদমস্তক একজন আওয়ামী লীগার। নিবেদিতপ্রাণ দুঃসময়ে একজন কর্মী। কিন্তু খেলার মাঠে মোহামেডানের নির্ভরতার প্রতীক। তার কমিটমেন্ট মোহামেডানের প্রতি যেমন ছিল, তেমনি রাজনীতিতে তার কমিটমেন্ট ছিল গভীর, সেটা বঙ্গবন্ধু এবং শেখ হাসিনার ব‌্যাপারে।”

কাদের বলেন, “বাদল রায়ের সৌজন্যবোধ ছিলো অতুলনীয়। আমাদের রাজনীতি থেকে আজকে মূল্যবোধ, সৌজন্যবোধ হারিয়ে যাচ্ছে। এর বদলে রাজনীতিতে বিদ্বেষ ভাইরাসের মতো ছড়িয়ে পড়েছে। এ থেকে আমাদের বেরিয়ে আসতে হবে।”

দুর্নীতিবাজদের রাজনীতি থেকে দূরে রাখার আহ্বান জানিয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন “রাজনৈতিক দলের যারা বিদ্বেষের চর্চা করেন, যাদের মূল‌্যবোধের অভাব রয়েছে, যারা দুর্নীতি করেন; তাদের নেতৃত্ব থেকে দূরে রাখতে হবে।

“তা না হলে রাজনীতিতে ভালো মানুষরা জায়গা পাবে না। বয়কট করতে হবে দুর্নীতিবাজ, নারী অবমাননাকারী ও দখলবাজদের। এদের সংখ‌্যা বেশি নয়। দল, সমাজ ও রাষ্ট্রে সৎ নৈতিকতাসম্পন্ন ত‌্যাগীদের আনতে হবে।”

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, “করোনাভাইরাস কোনো ব্যক্তি বা গোষ্ঠীর নয়, তাই দলমত নির্বিশেষে ঐক্যবদ্ধভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে এ ভাইরাসের মোকাবেলা করতে হবে “

ক্রীড়া পরিবারের উদ্যোগে আয়োজিত সভায় আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য মোজাফফর হোসেন পল্টু, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক হারনুর রশিদসহ বিভিন্ন ফেডারেশনের নেতা ও ক্রীড়া সাংবাদিক, খেলোয়াড়, সংগঠক উপস্থিত ছিলেন।