।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ায় যুক্তরাজ্যের লন্ডনসহ কয়েকটি শহরে আবারো কঠোর লকডাউন শুরু হয়েছে। 

রোববার (২০ ডিসেম্বর) সকাল থেকে এই লকডাউন শুরু হয়েছে।

এদিকে যুক্তরাজ্যে করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় দেশটির সঙ্গে বিমানের ফ্লাইট বাতিল করেছে নেদারল্যান্ডস ও বেলজিয়াম। যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় যুক্তরাজ্যের লন্ডন, সাউথইস্ট ইংল্যান্ড এবং ইস্ট ইংল্যান্ডে কঠোরভাবে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। এর ফলে এসব এলাকার কোনো বাসিন্দা সহজে ঘর থেকে বাইরে হতে পারবেন না। লোকজন এক এলাকা থেকে অন্য এলাকায়ও যেতে পারবেন না। খুব প্রয়োজন না হলে বাসার বাইরে যেতে পারবেন না। বাসা থেকেই যাবতীয় কাজ করতে হবে। অত্যাবশ্যকীয় ছাড়া সকল দোকানপাটও বন্ধ থাকবে।  

যুক্তরাজ্যের এসব শহরে দুই সপ্তার জন্য লকডাউন কার্যকর করা হয়েছে। ১৯ ডিসেম্বর দেশটির প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন হঠাৎ করেই লকডাউন ঘোষণা করেন। বড়দিন ও থার্টি ফার্স্ট নাইট সামনে রেখে দেশটিতে লকডাউন জারি করা হয়। এ বছর ঘরের মধ্যেই বড়দিন পালনের আহ্বান জানিয়েছেন বরিস জনসন।

যুক্তরাজ্যে গত এক সপ্তায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন তিন হাজারের বেশি লোক। আর এই সময়ে নতুন করে সংক্রমণের শিকার হয়েছেন পৌনে দুই লাখ।

যুক্তরাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানকক নিজেই স্বীকার করে নিয়েছেন, যুক্তরাজ্যের করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে। সে কারণেই এবার কঠোর লকডাউন দিতে হয়েছে। এবারের লকডাউনের মেয়াদ দুই মাস হতে পারে বলে তিনি আভাস দিয়েছেন।