।। নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী ।।

রাজশাহীতে ১২ হাজার টাকার বিনিময়ে ছয় মাস বয়সী সন্তানকে বিক্রি করে পালিয়েছেন এক দম্পতি। শিশু বিক্রির মধ্যস্থতাকারীদের দাবি, স্বামীর চিকিৎসা ব্যয় নির্বাহ করতে শিশুসন্তান বিক্রি করেন মা।

বিষয়টি জানতে পেরে পুলিশ শিশু বিক্রির সঙ্গে জড়িতদের আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। খোঁজ চলছে শিশুটির বাবা-মারও।

ফুটফুটে সুমাইয়ার বয়স ছয় মাস। এখনও মায়ের দুধই তার মূল খাবার। জন্মের পর যে কোলে ভরসার ওম পেয়েছিলো, সেই মা তাকে দু’দিন আগে বারো হাজার টাকায় বিক্রি করেছেন। কেনার পর থেকে শিশুটি লালন-পালন করছেন গাইবান্ধার এক নিঃসন্তান দম্পতি।

বিক্রির সমস্ত আয়োজন করেছেন নগরের রেল স্টেশন এলাকার ছিন্নমূল শারীরিক প্রতিবন্ধী নারী সীমা। তিনি ভদ্রা বস্তির বাসিন্দা রোকেয়ার মাধ্যমে শিশু বিক্রির প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেন। সীমার দাবি, স্বামীর চিকিৎসার টাকা যোগাতে শিশুটি বিক্রি করেছেন তার মা।

বিষয়টি জানতে পেরে শিশু কেনার সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। খোঁজা হচ্ছে বিক্রেতা দম্পতিকেও। যদিও শিশু বিক্রির পরই তারা পালিয়েছেন।

জানা যায়, গতবছর সীমা তার নিজের সন্তানকেও দশ হাজার টাকার বিনিময়ে বিক্রি করে দিয়েছিলেন।