।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

সৌদি আরবে হওয়ার কথা ছিল জি২০ সামিট। কিন্তু প্যানডেমিকের জন্য সিদ্ধান্ত হয়েছে দুই দিনের বৈঠক ভার্চুয়ালি হবে। রিয়াধে বৈঠকে বসার কথা ছিল জি ২০ নেতাদের। কিন্তু কোভিড প্যানডেমিকের কারণে আরও অনেক বৈঠকের মতো সেই বৈঠকও বাতিল হয়েছিল। রোববার স্থির হয়েছে, সৌদি আরবই জি২০ বৈঠকের আয়োজন করবে, তবে ভার্চুয়ালি।

আগামী ২১ এবং ২২ নভেম্বর জি ২০ বৈঠক হবে বলে সরকারি ভাবে ঘোষণা করা হয়েছে। ভার্চুয়াল সেই সভার চেয়ারপার্সন হবেন সৌদি আরবের রাজা। ঠিক হয়েছে, প্যানডেমিক সময়ে সাধারণ মানুষের স্বাস্থ্য এবং দেশগুলির অর্থনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে দীর্ঘ আলোচনা হবে বৈঠকে। রেসোলিউশন বা প্রস্তাবও নেওয়া হবে ওই দুইটি বিষয় মাথায় রেখেই।

জি২০ সম্মেলনের আলোচনা শুরুর আগে, সব বিশ্বনেতাদের বরণ করেন স্বাগতিক দেশ জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে৷ ছবিতেও দেখা যাচ্ছে, বিনয়ী আবে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানাচ্ছেন চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংকে৷

এর আগে ঠিক ছিল গুরুত্বপূর্ণ জি২০ সামিট রিয়াধে হবে। সৌদি আরব হোস্ট কান্ট্রি হিসেবে সমস্ত আয়োজনের দায়িত্ব নেবে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেই পরিকল্পনা বাতিল করা হয়।

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ শুরু হওয়ার পরে জি ২০ দেশগুলি বৈঠক করে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। এর মধ্যেই তারা প্রায় ২১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ব্যয় করেছে করোনার সঙ্গে লড়াইয়ের জন্য। বিভিন্ন দেশের ভ্যাকসিন পরীক্ষাতেও অনুদান দিয়েছে জি ২০ দেশগুলি। তবে সূত্র জানাচ্ছে, গত ছয় মাসে যে ভাবে প্রায় প্রতিটি দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা ধসে পড়েছে, তা নিয়ে চিন্তিত জি ২০ দেশগুলি। কী ভাবে এই পরিস্থিতি থেকে ঘুরে দাঁড়ানো যায়, তা নিয়ে জরুরি সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে বৈঠকে।

এ দিকে ইউরোপে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ চলে এসেছে বলে অনেকেই মনে করছেন। নতুন করে সংক্রমণ বাড়ছে। শীতে সমস্যা আরও বাড়বে বলে কোনও কোনও বিশেষজ্ঞ মনে করছেন। এই পরিস্থিতিতে এখনই সব কিছু স্বাভাবিক হওয়ার কোনও সম্ভাবনা দেখতে পাচ্ছে না দেশগুলি। সে কারণেই প্যানডেমিকের সঙ্গে মানিয়ে নিয়ে কী ভাবে অর্থনীতির উন্নতি করা যায়, তা নিয়ে ভাবনা চিন্তা শুরু হয়েছে। জি২০ সামিটে সে বিষয়ে দীর্ঘ আলোচনা হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

Berger Weather Coat