।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

সদস্য দেশগুলোতে স্বাস্থ্য সংশ্লিষ্ট তথ্য প্রযুক্তি খাতে বিনিয়োগ বাড়ানোর কথা জানিয়েছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)। সেইসাথে করোনার কার্যকর ও নিরাপদ ভ্যাক্সিন পেতে সদস্য দেশগুলোর উদ্যোগে সহায়তা করবে সংস্থাটি। এজন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাসহ সংশ্লিষ্টদের সাথে নিবিড়ভাবে কাজ করছে সংস্থাটি। বোর্ড অব গভর্নরস এর ৫৩তম বার্ষিক সভা শেষে সংস্থাটি এ তথ্য জানিয়েছে।

বিশ্বব্যাপী করোনা পরিস্থিতির কারণে এবারের সভাটি ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে অনুষ্ঠিত হয়েছে। দুই দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত সভা শুক্রবার শেষ হয়েছে। সভার বিষয়ে এক প্রেসবার্তায় সংস্থাটি এ তথ্য উল্লেখ করেছে।

সভায় এডিবি প্রেসিডেন্ট মাসাটসুগু আসাকাওয়া বলেছেন, করোনা ভাইরাসের প্রকোপ থেকে অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে উন্নয়নশীল বিশ্বের প্রতি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ এডিবি। টেকসই, স্থিতিস্থাপক এবং অন্তর্ভুক্তিমূলক অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধার হলো আমাদের লক্ষ্য। করোনার প্রভাব থেকে অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে গত এপ্রিলে সংস্থাটি ২০ বিলিয়ন ডলার (১ লাখ ৭০ হাজার কোটি টাকা) ঋণ ও অনুদান প্যাকেজ ঘোষণা করে। এরমধ্যে জরুরিভাবে অনুদান এবং কারিগরি সহায়তা ছাড় করেছে সংস্থাটি। করোনা মোকাবিলায় ইতোমধ্যে সদস্য দেশগুলোর জন্য জরুরিভাবে ১১২০ কোটি ডলার (৯৫২০০ কোটি টাকা) দেবার চুক্তিবদ্ধও হয়েছে সংস্থাটি।

এবারের সভায় অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে সদস্যদেশগুলোর জন্য ছয়টি ক্ষেত্রে সহায়তার কথা উল্লেখ করেছেন এডিবি প্রেসিডেন্ট। এগুলোর মধ্যে প্রথমত করোনা পরবর্তী সময়ে আঞ্চলিক সহযোগিতা বৃদ্ধি এবং বিশ্বায়ন প্রক্রিয়া জোরদার করা হবে। এজন্য সদস্য দেশগুলোর ভ্যালু চেইন ব্যবস্থার উন্নয়নে সহায়তা করবে এডিবি।

দ্বিতীয়ত কোভিড-১৯ এর প্রভাবে আয় বৈষম্য বেড়েছে। সেইসাথে বেড়েছে দারিদ্র্য। এডিবি সদস্য দেশগুলোর স্বাস্থ্য, শিক্ষা এবং সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি খাতে বিনিয়োগ করবে যাতে করে মানবসম্পদ খাতের উন্নতি হয়। তৃতীয়ত জলবায়ু পরিবর্তনজনিত বিরূপ প্রভাব মোকাবিলায় দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা বাস্তবায়নে জোর দেওয়া হবে। সংস্থাটির দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনায় ২০৩০ সাল পর্যন্ত সবমিলিয়ে ৮০ বিলিয়ন ডলার (৬ লাখ ৮০ হাজার কোটি টাকা) অর্থায়ন করার পরিকল্পনা রয়েছে।

চতুর্থত স্বাস্থ্য সেবায় তথ্য প্রযুক্তি খাতে বিনিয়োগ বাড়ানো হবে। বিশেষ করে সাইবার সিকিউরিটি এবং ডিজিটাল ডিভিডেন্ড সুবিধা বাড়াতে উদ্যোগ থাকবে। পঞ্চমত এডিবি তার সদস্য দেশগুলোর অভ্যন্তরীণ সম্পদ ব্যবস্থাপনা শক্তিশালী করতে সহায়তা করবে। অভ্যন্তরীণ রাজস্ব আহরণে দক্ষতা বৃদ্ধি এবং ঋণ ব্যবস্থাপনায় এই সহায়তা করা হবে। ষষ্ঠত এডিবি তার সদস্য দেশগুলোতে নিরাপদ ও কার্যকর ভ্যাক্সিন পেতে সহায়তা করবে। সেইসাথে এই ভ্যাক্সিনগুলো ন্যয়সঙ্গতভাবে বিতরণ ব্যবস্থাপনায় সহায়তা করবে। এজন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, বিশ্বব্যাংক, ভ্যাক্সিন এলায়েন্স, ভ্যাক্সিন বিশেষজ্ঞ এবং ওষুধ প্রতিষ্ঠানগুলোর সাথে সহযোগিতা জোরদার অব্যাহত থাকবে।

Berger Weather Coat